মুক্তিপণের বিনিময়ে অপহৃত স্কুল ছাত্র উদ্ধার

মুক্তিপণের বিনিময়ে রাকিবুল হাসান (৮) নামের অপহৃত এক স্কুল ছাত্রকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় অপহরণের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে অপহৃতের এক আত্মীয়কে।

অপহৃত স্কুল ছাত্র রাকিবুল বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার আগপুর গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে এবং চৌমহুনী বাজার আলমদিনা একাডেমীর ২য় শ্রেণির ছাত্র।

মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে নন্দীগ্রাম ও সদর থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে বগুড়া শহরতলীর মাটিডালী বিমান মোড় এলাকা থেকে অপহৃত স্কুল ছাত্রকে উদ্ধার করে।

জানা গেছে, গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টার দিকে স্কুল ছুটি শেষে বাড়ি ফেরার পথে রাকিবুল হাসান নিখোঁজ হয়। পরে তার বাবার কাছে মোবাইল ফোনে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ কৌশলে দরকষাকষি করে ৫০ হাজার টাকায় অপহরণকারীর সঙ্গে মধ্যস্থতা করে।

সেই অনুযায়ী ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণের বিনিময়ে স্কুল ছাত্রকে তার পরিবারের কাছে ফেরত দেয়ার প্রক্রিয়া করা হয়। মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে সদর থানা ও নন্দীগ্রাম থানা পুলিশ মাটিডালী বিমান মোড়ে অবস্থান নেয়। এ সময় পুলিশ জানতে পারে অপহৃত ওই শিশুকে একটি বাস যোগে রংপুর থেকে আনা হচ্ছে। পরে পুলিশ মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে বাস তল্লাশিকালে সিলেটগামী একটি বাস থেকে অপহৃত শিশুটিকে উদ্ধার করে এবং অপহরণকারী সিয়াম হোসেনকে (২২) গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত সিয়াম সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ থানার জয়ন্তপুর গ্রামের সাহেব আলীর ছেলে।

নন্দীগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান শামিম ইকবাল জানান, গ্রেফতারকৃত সিয়াম শিশুটির আত্মীয়। কৌশলে তাকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করা হয়েছিল।

You Might Also Like