মিউনিখের ঘাতকের সঙ্গে নরওয়ের খুনি ব্রেইভিকের যোগাযোগ ছিল

জার্মানির মিউনিখে গতকাল নয় ব্যক্তিকে হত্যাকারী বন্দুকধারীর সঙ্গে নরওয়ের আত্মস্বীকৃত গণহত্যাকারী অ্যান্ডার্স বেহরিং ব্রেইভিকের যোগাযোগ ছিল। জার্মান পুলিশ এ কথা জানিয়ে বলেছে, গণহত্যা চালাতে অঙ্গীকারাবদ্ধ ছিল মিউনিখের হত্যকারী।

মিউনিখের ঘাতক তরুণের মানসিক সমস্যা ছিল। হতাশায় ভোগার কারণে তার মানসিক চিকিৎসা চলছিল বলেও পুলিশের দেয়া তথ্য থেকে জানা গেছে।

ওই ঘাতক গতকাল হামলা চালিয়ে যাদের হত্যা করে তাদের মধ্যে সাতজনই কিশোর বয়সের। এদের মধ্যে তিনজন কোসোভোর এবং তিনজন তুরস্কে অধিবাসী। এ ছাড়া, একজন গ্রিসের অধিবাসীও ছিল।
১৮ বছর বয়সি এ তরুণ ঘাতকের কক্ষ তল্লাশি করেছে পুলিশ। সেখানে হামলার বিষয়ে লিখিত কাগজপত্র পাওয়া গেছে। মিউনিখের বিপণি বিতানে হামলার পর ঘাতক তরুণ আত্মহত্যা করে। তার কাছে ৯এমএম গ্লোওক পিস্তল এবং ৩০০ বুলেট পাওয়া গেছে।

এর আগে, ২০১১ সালে ২২ জুলাই নরওয়ের রাজধানী অসলোতে বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এবং উতোইয়া দ্বীপে ক্ষমতাসীন লেবার পার্টির বার্ষিক ইয়্যুথ ক্যাম্পে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ৭৭ জন নিরীহ মানুষকে হত্যা করে ব্রেইভিক। নরওয়ের আত্মস্বীকৃত এ গণহত্যাকারী বর্তমানে ২১ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করছে।

You Might Also Like