মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রীর ২ হাজার কোটি টাকার সম্পদ জব্দ

নাজিব রাজাক ও তার স্ত্রী
মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের বাড়ি থেকে প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা মূল্যের সম্পদ জব্দ করা হয়েছে। জব্দ করা সম্পদের মধ্যে ১২ হাজার পিস গয়না, বিভিন্ন ব্যাগে প্রায় তিন কোটি ডলারের সমমূল্যের ২৬টি দেশের মুদ্রা, ৪২৩টি ঘড়ি এবং ২৩৪ জোড়া সানগ্লাস। এ ছাড়া নামীদামি নকশাকারদের তৈরি খুব দামি ও শৌখিন জিনিস রয়েছে। গত মাসে কুয়ালালামপুরে নাজিবের বিলাসবহুল ভবন এবং মূল বাড়িসহ তার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ছয়টি স্থানে অভিযান চালিয়ে এসব মূল্যবান জিনিস জব্দ করা হয়।
দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, গয়নার তালিকায় বেশির ভাগই নেকলেস ও আংটি। এ সংখ্যা যথাক্রমে ১ হাজার ৪০০ ও ২ হাজার ২০০। নেকলেসের মধ্যে সবচেয়ে দামিটির মূল্য ১৫ লাখ ডলার হতে পারে।
বাণিজ্যিক অপরাধ তদন্ত বিভাগের পুলিশপ্রধান অমর সিংহ বলেছেন, এটিই সম্ভবত মালয়েশিয়ার ইতিহাসে সবচেয়ে বড় জব্দ তালিকা। জব্দ জিনিসপত্রের মূল্য সাড়ে ২২ কোটি ডলার থেকে ২৭ কোটি ৩০ লাখের মধ্যে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।
নাজিব রাজাক ক্ষমতায় থাকা অবস্থাতেই তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠে। রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিনিয়োগ তহবিল ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বেরহাদের (ওয়ানএমডিবি) অর্থ আত্মসাৎ করে নাজিব নিজ ব্যাংক হিসাবে জমা করেছিলেন বলেও অভিযোগ উঠেছিল।
এরপর বলা হয়েছিল, নাজিব রাজাককে ২০১৩ সালের নির্বাচনে জয়ী হতে সহায়তা করতে ৬৮ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলার দিয়েছিল সৌদি আরব। তবে নাজিব বরাবরই দুর্নীতির অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

You Might Also Like