মার্কিন নির্বাচন : ফ্লোরিডায় আগাম ভোট গ্রহণ শুরু

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ফ্লোরিডা রাজ্যে আগাম ভোট গ্রহণ হয়েছে।

এ নির্বাচনে ফ্লোরিডা ‘ব্যাটেলগ্রাউন্ড’ রাজ্য হিসেবে পরিচিত। অর্থাৎ এ রাজ্যে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন ও রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প উভয়ের জয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। তুমুল লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে এ রাজ্যে জয়-পরাজয় নিশ্চিত হবে।

ফ্লোরিডায় একের পর এক পাঁচটি জনসভা করেছেন ট্রাম্প। হিলারি ক্লিনটনও পুরোদমে নির্বাচনী প্রচার চালিয়েছেন।

এ রাজ্যে ই-মেইল ভোটিং শুরু হয়েছে কয়েক সপ্তাহ আগে। ১০ লাখের বেশি ভোটার এরই মধ্যে তাদের ভোট দিয়েছেন।

সিবিএস/ইউগভ-এর জরিপের তথ্যানুযায়ী, গৃহীত ভোটে হিলারি ক্লিনটন ৩ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন। হিলারি পেয়েছেন ৪৬ শতাংশ আর ট্রাম্প পেয়েছেন ৪৩ শতাংশ ভোট।

সাম্প্রতিক জরিপগুলোতে দেখা যাচ্ছে, জাতীয় পর্যায়ে এবং ব্যাটেলগ্রাউন্ড রাজ্যগুলোতে হিলারি স্পষ্ট ব্যবধানে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে আছেন।

সিএনএন/ওআরসির নতুন জরিপে উঠে এসেছে, ট্রাম্পের চেয়ে হিলারি ৬ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন। জাতীয় পর্যায়ে হিলারির দিকে সমর্থন রয়েছে ৫১ শতাংশ এবং ট্রাম্পের দিকে রয়েছে ৪৫ শতাংশ।

মিশিগান, জর্জিয়া ও ইউটাহ-এ সব সময় রিপাবলিকানদের আধিপত্য। কিন্তু এবার এসব রাজ্যেও হিলারির জয়ের সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে। দুই প্রার্থীর ব্যবধান খুবই কমে এসেছে।

তবে সোমবার সেন্ট অগাস্টিনে এক জনসভায় ট্রাম্প জোর দিয়ে বলেছেন, ‘আমরাই জিতছি। আমরাই জিতছি। আমরাই জিতছি।’

সোমবার ট্রাম্প আবারও মিডিয়ার সমালোচনা করেছেন। তিনি নির্বাচনী ব্যবস্থাকে জালিয়াতপূর্ণ বলে অভিযোগ করেছেন। গণমাধ্যমকে হিলারিমুখী বলে অভিহিত করেছেন। এ ছাড়া জরিপ সংস্থাগুলোকেও তিনি দুষছেন।

আর দুই সপ্তাহ বাদে যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। এ নির্বাচনে শুরু থেকে এ পর্যন্ত জনপ্রিয়তা ও ভোটার সমর্থনে এগিয়ে আছেন হিলারি। তবে ট্রাম্প বলেছেন, ‘আমরা পিছিয়ে আছি, কিন্তু হাল ছাড়িনি। অর্থাৎ জয়ের ব্যাপারে এখনো আশাবাদী ট্রাম্প। তবে শেষ পর্যন্ত কী হচ্ছে, তা ৮ নভেম্বরই জানা যাবে।’

You Might Also Like