মহানগর বিএনপির নতুন কমিটির বৈঠক আজ

আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে বিএনপির নবগঠিত ঢাকা মহানগনর কমিটি। আজ দুপুরে জরুরি বৈঠকে বসছেন কমিটির নেতারা। রাজধানীর নয়াপল্টনে ভাসানী ভবনে নবগঠিত  কমিটির আহ্বায়ক ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের সভাপতিত্বে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

এ বৈঠক সম্পর্কে নবগঠিত কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক আবু সাঈদ খান খোকন গণমাধ্যমকে বলেন, আনুষ্ঠানিকভাবে এটাই নতুন কমিটির প্রথম বৈঠক। বৈঠকে কমিটির নেতাদের মধ্যে শুভেচ্ছা বিনিময় ছাড়াও আগামী দিনে দলের ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড ও থানা কমিটি গঠন প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা হবে।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, ১৮ জুলাই রাতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে আহ্বায়ক ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে সদস্য সচিব করে ৫২ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। একই সঙ্গে কমিটির চার উপদেষ্টার নাম ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত কমিটিকে সম্মেলনের মাধ্যমে ওয়ার্ড ও থানা কমিটি গঠনের জন্য এক মাস এবং মহানগর কমিটি গঠনের জন্য এক মাস সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। কিন্তু কমিটি নিয়ে ক্ষুব্ধ মির্জা আব্বাস অনুগত নেতাদের নিয়ে বাসায় বেশ কয়েকবার রুদ্ধদ্বার বৈঠক করলেও এখন পর্যন্ত গণমাধ্যমের সামনে কোনো মুখ খোলেননি। আজ বৈঠক শেষে নতুন এ কমিটি নিয়ে মুখ খুলতে পারেন মির্জা আব্বাস।

এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কমিটির একজন যুগ্ম আহ্বায়ক এই প্রতিবেদককে বলেন, ভিতরে ভিতরে ক্ষোভ থাকলেও কমিটির আহ্বায়ক ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস তার ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পাশাপাশি ওমরাহ হজ শেষে দেশে ফেরার পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত্ করে ক্ষোভের কারণসমূহ তুলে ধরবেন এবং সমাধানের চেষ্টা করবেন। তিনি জানান, মির্জা আব্বাসের পছন্দের বেশ কয়েকজন নেতা ঘোষিত কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন। তার ধারণা, দলের প্রভাবশালী একটি গ্রুপ ষড়যন্ত্র করে তার সুপারিশের নেতাদের বাদ দেয়ার পেছনে কাজ করেছে। গতকাল দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বুধবার দুপুর ১২টায় অনুষ্ঠেয় এই বৈঠকে ঢাকা মহানগর বিএনপির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির উপদেষ্টাসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে উপস্থিত থাকতে অনুরোধ করা হয়েছে।

You Might Also Like