ভোটেও যৌনাবেদন!

ভোট দেওয়ার মধ্যেও যৌন আবেদন আছে! এ কথাটি সত্য বা মিথ্যা যা-ই হোক না কেন, যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ক্যারোলিনা স্টেট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা কিন্তু তা প্রমাণ করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচন উপলক্ষে ইউনিভার্সিটিতে ‘ভোটিং ইজ সেক্সি’ শীর্ষক এক ব্যতিক্রমী প্রচারণা চালান তারা। আর এ প্রচারণা ক্যম্পাসের তরুণ ভোটারদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলে।

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে তরুণ ভোটারদের ভোটদানে উৎসাহিত করতেই শিক্ষার্থীরা এমন ব্যতিক্রমী প্রচারণা চালান। আর তাদের এ কার্যক্রমে সহযোগিতা করেছে পাঠকপ্রিয় ম্যাগাজিন কসমোপলিটন।

মধ্যবর্তী নির্বাচনে তরুণ ভোটারদের উৎসাহিত করার লক্ষ্যে গত অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংগঠনগুলোর জন্য একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করে ওই ম্যাগাজিনটি।নির্বাচনের দিন ভোটারদের উৎসাহিত করতে ছাত্রসংগঠনগুলোর পরিকল্পনা কী তা বিস্তারিত জানিয়ে কসমোপলিটনের সম্পাদকীয় বিভাগ বরাবর পাঠাতে বলা হয়।

কসমোপলিটনের পক্ষ থেকে বলা হয়, অংশগ্রহণকারী ছাত্র সংগঠনগুলোর মধ্যে যার আইডিয়া কর্তৃপক্ষের সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয় মনে হবে, নির্বাচনের দিন ওই ছাত্র সংগঠনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভোটারদের কেন্দ্রে যাতায়াতের জন্য একটি পার্টি বাস পাঠানো হবে। এছাড়া জাঁকজমকপূর্ণ অন্যান্য আয়োজনও থাকবে।

উল্লেখ্য, নর্থ ক্যারোলিনা স্টেট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের ‘ভোটিং ইজ সেক্সি’ ধারণাটি প্রতিযোগিতায় সেরা বিবেচিত হয়। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী মঙ্গলবারের নির্বাচনে ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে হাজির হয় জাকজমকপূর্ণ পার্টি বাস। যা ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ ভোটারদের মধ্যে সাড়া ফেলে।

You Might Also Like