ভিপি নুরের বিরুদ্ধে এবার ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা

ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) এর ভিপি নুরুল হক নুর ও সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

গত ২৬ ডিসেম্বর রাজধানীর ধানমন্ডি থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জহন্নাথ হল শাখা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক এবং হল সংসদের বহিরাঙ্গন ক্রীড়া সম্পাদক অর্ণব হোড়।

 

শনিবার ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির এ তথ্য জানিয়েছেন।

 

তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর উদ্দেশ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মানহানিকর তথ্য প্রকাশের অভিযোগ আনা হয়েছে মামলায়।

 

গত ২৬ ডিসেম্বর মামলাটি নথিভুক্ত করা হয়েছে জানিয়ে হুমায়ুন কবির বলেন, আমরা মামলাটি তদন্ত করছি। তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ধানমন্ডি জোনের অতিরিক্ত কমিশনার (এডিসি) আবদুল্লাহিল কাফী বলেন, নুর ও রাশেদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় উসকানি ও অপপ্রচার চালানোর অভিযোগে ধানমন্ডি থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের ২৫, ২৬, ২৯ ও ৩১ ধারায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ণব হোড় নামের এক শিক্ষার্থী।

 

মামলা দায়েরকারী অর্ণব হোড় বলেন, হামলার দিন নুর ও রাশেদ ফেসবুক লাইভে এসে গুজব ছড়ায়। এছাড়া ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতির বিরুদ্ধে মিথ্যা ও মানহানিকর তথ্য ছড়িয়েছে।

 

এর আগে গত ২৫ ডিসেম্বর বুধবার নুরসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে ছিনতাই, হত্যাচেষ্টা ও হামলার অভিযোগ এনে মামলা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের ছাত্র ডিএম সাব্বির হোসেন।

 

এছাড়াও গত সোমবার রাতে আটজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত পরিচয় আরও ৩৫ জনকে আসামি করে মামলা করেন শাহবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ রইচ উদ্দিন।

 

হামলার ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনসহ ৩৭ জনকে আসামি করে মঙ্গলবার রাতে নুরের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়।

 

রোববার দুপুরে ডাকসু ভবনের ভেতরে এবং বাইরে ভিপি নুর এবং তার সহযোগীদের ওপর মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ হামলা চালায়। প্রায় আধঘণ্টা চলে সেই হামলা। এতে ভিপি নুরসহ আহত হয় অন্তত ১৫ জন।

 

হামলার প্রায় এক ঘণ্টা পর ঢাবি প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রাব্বানী ঘটনাস্থলে গিয়ে ভিপি নুর ও তার সহযোগীদের উদ্ধার করেন। পরে তাদেরকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

 

গুরুতর আহত কয়েকজন এখনও হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

 

পিটিয়ে অবশেষে নুরদের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা ও চুরির মামলা

 

নুরের মামলার বাদী পুলিশ, মূল এজাহারও পুলিশের

You Might Also Like