ভার্জিনিয়ায় ফ্র্যান্ডস এন্ড ফ্যামিলি’র বৈশাখী মেলা

মেট্রো ওয়াশিংটনের ভার্জিনিয়ায় ফ্র্যান্ডস এন্ড ফ্যামিলি’র আয়োজনে মহা আনন্দে-উৎসবে প্রতি বছরের মত এবারও পালিত হয়েছে বৈশাখী মেলা। গত ৬ এপ্রিল শনিবার এ্যনানডেলস্থ মেসন ডিস্ট্রিক্ট পার্কে অনুষ্ঠিত এই মেলায় বিপুল লোক সমাগম হয়। সেদিনের মেলার আয়োজনটি ছিল মেসন ডিস্ট্রিক্ট পার্কের বনানীঘেরা খোলা মাঠের চত্বরে। স্বদেশী মেলার সাথে প্রবাসী মেলার আয়োজনে কিছুটা পার্থক্য থাকবে এটাই স্বাভাবিক। দেশের মেলায় যে সব আয়োজন সম্ভব, প্রবাসে তা সম্ভব নয়; কিন্তু শেকড়ের টানে, ঐতিহ্যের ভালাবাসায় যেটুকু হয়েছে তা ই কম কোথায়! এসব আয়োজনের পথ ধরেই আমাদের নতুন প্রজন্ম সম্পৃক্ত হচ্ছে স্বদেশ সাংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের সাথে।

এই সুন্দর আয়োজনের প্রাণপুরুষটি ছিলেন ফ্র্যান্ডস এন্ড ফ্যামিলি’র কর্ণধার আক্তার হোসাইন এবং সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন শতরুপা বড়ুয়া ও শিব্বির আহমেদ।

মেলার সারাটি প্রাঙ্গণ জুড়ে সবার মধ্যে ছিল প্রাণের স্পন্দন। বর্ণাঢ়্য মঞ্চের সামনে আসন জুড়ে বসে বেশীর ভাগ লোকই উপভোগ করেছে স্থানীয় এবং বাংলাদেশ থেকে আমন্ত্রিত অতিথি শিল্পীদের সঙ্গীত। আর পেছনে মাঠের দিকে অনেকেই ব্যস্ত ছিলেন সুস্বাদু খাবারে রসনা তৃপ্তি, শপিং, আড্ডা আর জটলায়। মঞ্চের সামনে হোক, পেছনে খোলা মাঠে হোক, খাবারের দোকানের সামনে হোক অথবা অলংকার বা কাপড়ের দোকানের সামনে হোক, সর্বত্র লক্ষণীয় ছিল ‘সেলফি’ তোলা!

এদিকে বাংলাদেশ থেকে আগত জনপ্রিয় শিল্পী তাহসিন যখন তার জনপ্রিয় গানগুলো গেয়ে যাচ্ছিলেন একের পর এক, সবাই তখন আনন্দে আন্দোলিত গানের তালে। অনেকেরই হাতে ছিল মিনি লাইভ ব্রডকাস্ট!

দর্শকদের আরো দৃষ্টি আকর্ষণ  লক্ষ্য করেছে- তরুণ প্রজন্ম আর মধ্য বয়সী অনেকের সঙ্গীত সচেনতায়! দর্শক শ্রোতাদের অনেকেই শিল্পীদের সাথে তাঁদের প্রায় গানগুলোই গুন গুনিয়ে গেয়ে যাচ্ছিলেন! মুগ্ধ শ্রোতারা সঙ্গীতের ইন্দ্রজ্বালে আটকে গেলেও সময়তো থেমে থাকে না! সন্ধ্যা ঘনিয়ে এলে সময়ের ঘণ্টা বেজে যায়, সাঙ্গ হয় মেলার মুখরতা। আনন্দ আর তৃপ্তির আমেজ নিয়ে ঘরে ফিরেন দূর দূরান্তের আগতরা। মন যেতে চায় না, টেনে নিয়ে যায় ঐ দিগন্তে…!

You Might Also Like