ভারতের হুমকিতে উদ্বিগ্ন নয় ইরান: তেলমন্ত্রী

ইরানের তেলমন্ত্রী বিজান জাঙ্গানে বলেছেন, ভারত তার দেশ থেকে তেল আমদানি কমিয়ে দেয়ার যে হুমকি দিয়েছে তাতে উদ্বিগ্ন নয় তেহরান। ইরানের তেল কেনার জন্য বহু ক্রেতা অপেক্ষা করছে বলে তিনি উল্লেখ করেছেন।

বুধবার তেহরানে মন্ত্রিপরিষদের এক বৈঠক শেষে ইরানের তেলমন্ত্রী বলেন, নয়াদিল্লির সঙ্গে সহযোগিতা শক্তিশালী করার জন্য আলোচনা করতে প্রস্তুত রয়েছে ইরান। কিন্তু এর অর্থ এই নয় যে, তেহরান হুমকির ভাষা মেনে নেবে।

জাঙ্গানে বলেন, “আলোচনায় উপযুক্ত পরিবেশ থাকতে হবে। ইরান হুমকির মুখে কোনো চুক্তি সই করবে না। হুমকির ভাষা ভালো নয়।” তিনি আরো বলেন, “ভারত আমাদের অন্যতম ভালো ক্রেতা এবং আমরা এ সহযোগিতা জোরদার করতে চাই। তবে ভারত যদি আমাদের রপ্তানি কমিয়ে দিতে চায় তাহলে আমরা কোনো সমস্যায় পড়ব না কারণ আমাদের হাতে আরো অনেক ক্রেতা রয়েছে।”

নয়াদিল্লির নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে ইরানের প্রেস টিভি জানিয়েছে, ‘ফারজাদ-বি’ গ্যাস ক্ষেত্র উন্নয়নে ইরান ভারতকে ছাড় না দিলে দেশটির রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত তেল কোম্পানিগুলো ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ইরান থেকে তেল আমদানি এক-পঞ্চমাংশ কমিয়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছে।

পারস্য উপসাগরে অবস্থিত গ্যাস ক্ষেত্র ‘ফারজাদ-বি’তে ১২.৫ ট্রিলিয়ন ঘন ফুট প্রাকৃতিক গ্যাস রয়েছে যা ৩০ বছরের মধ্যে উত্তোলন করতে হবে।

ভারতীয় কোম্পানি ‘ওএনজিসি বিদেশ’-এর নেতৃত্বে দেশটির একটি কনসোর্টিয়াম এই গ্যাসক্ষেত্রের উন্নয়নের জন্য ৩০০ কোটি ডলারের টেন্ডার জমা দিয়েছে। কিন্তু গ্যাসের দামসহ আরো কিছু ইস্যুতে তেহরানের সঙ্গে ওই কনসোর্টিয়ামের বনিবনা হচ্ছে না।

জাঙ্গানে এ সম্পর্কে বলেন, গত বছর ইরান ও ভারতের মধ্যে স্বাক্ষরিত এক সমঝোতা অনুযায়ী, ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরের মধ্যে নয়াদিল্লির পক্ষ থেকে প্রস্তাব আসার কথা ছিল; কিন্তু তারা তা দিতে ব্যর্থ হয়। এমনকি ভারত ২০১৬ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেও গ্রহণযোগ্য ও লাভজনক কোনো প্রস্তাব দিতে পারেনি বলে তিনি উল্লেখ করেন।

You Might Also Like