ভারতের সফল রকেট উৎক্ষেপণ

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতে পোলার স্যাটেলাইট লাঞ্চ ভেহিকেল বা পিএসএলভি-২৩ নামের রকেট সফলভাবে উৎক্ষেপণ করেছে ভারত।

অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটায় ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোর সতীশ ধাওয়ান মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র থেকে আজ (সোমবার) স্থানীয় সময় সকাল ৯টা ৫২ মিনিটে এ রকেটটি উৎক্ষেপণ করা হয়।  এ রকেটের সাহায্যে ফ্রান্স, জার্মানি, কানাডা ও সিঙ্গাপুর থেকে আনা পাঁচটি কৃত্রিম উপগ্রহ কক্ষপথে স্থাপন করা হয়েছে। উৎক্ষেপণের ১৭ থেকে ১৯ মিনিটের মধ্যেই এ সব উপগ্রহকে নিজ নিজ কক্ষপথে বসানো হয়।

 উৎক্ষেপণের পর ইসরোর বিজ্ঞানীদের অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, “দেশবাসীর গর্বের মুহূর্ত এটি। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পেরে আমি গর্ববোধ করছি। এর মধ্য দিয়ে বিশ্ব ভারতের মহাকাশ সক্ষমতাকে মেনে নিয়েছে।”

 ইসরোর বিজ্ঞানীদের উদ্দেশে নরেন্দ্র মোদি বলেন, “কম খরচে আধুনিক প্রযুক্তিতে কাজ করে দৃষ্টান্ত তৈরি করেছে ইসরো। অগ্রগতি হয়েছে ভারতের মহাকাশ গবেষণার। সার্ক উপগ্রহ উত্ক্ষেপণেও ভারতকে চ্যালেঞ্জ নিতে হবে। প্রতিবেশী দেশগুলিকে সার্ক উপগ্রহ উপহার দেবে ভারত।”

এ সময় আইএসআরওকে আরো অত্যাধুনিক এবং ভারি উপগ্রহ বসানোর সক্ষমতা অর্জনেরও আহ্বান জানান ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

 গতকাল শ্রীহরিকোটায় পৌঁছে টুইটার বার্তায় মোদি বলেছিলেন, তার সরকার মহাকাশ কর্মসূচিকে আরো জোরদার করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

 এর আগে আমেরিকা, ফ্রান্সের মতো দেশের কাছ থেকে মহাকাশ সংক্রান্ত যাবতীয় ছবি কিনতে হতো ভারতকে। ভারতীয় মহাকাশ বিজ্ঞানীদের দাবি, এখন আর অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা নয় মহাকাশে আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যেই এগিয়ে চলেছে ভারত।

 পিএসএলভি-সি২৩-রকেট উৎক্ষেপণের কাজ শুরু হয়েছিল সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-এর আমলে। এই নিয়ে পিএসএলভি’র রকেট ২৭ বার সফলভাবে উপগ্রহ উত্ক্ষেপণ করল। এবার ২৩০ টন ওজনের এই রকেট তৈরির খরচ হয়েছে প্রায় ১০০ কোটি টাকা।

 এর আগে, ইহুদিবাদী ইসরাইলসহ ১৯টি দেশের ৩৫টি উপগ্রহ সফলভাবে উত্ক্ষেপণ করেছে ভারতের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ইসরো।

You Might Also Like