ভারতের ‘নাম্বার ওয়ান’ নায়িকা কঙ্গনা

সম্প্রতি ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ‘বি’ গ্রেড অভিনেত্রী থেকে বলিউডের বর্তমান কুইন হয়ে ওঠা নিয়ে বিভিন্ন কথা বলেছেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রাণৌত। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের স্মৃতি মনে করে কঙ্গনা বলেছেন, ‘বি’ গ্রেড সিনেমা থেকে বলিউডের ‘এক নম্বর নায়িকা’ হয়েছেন তিনি। ধীরে ধীরে নিজের অবস্থার উন্নতি করেছেন। তিনি মনে করেন সেই তুলনায় তার সমসায়মিক নায়িকাদের অবস্থার তেমন পরিবর্তন হয়নি।

কুইন সিনেমায় সফলতার পর ২৮ বছর বয়সি এ অভিনেত্রী এখন আরো ব্যস্থ হয়ে পড়েছেন। সামনে রয়েছে কাট্টি বাট্টি, রেঙ্গুন, রাণী লক্ষীবাঈ এবং সিমরান সিনেমার কাজ।

‘এটা সবে মাত্র শুরু’ সাক্ষাৎকারে এমনটাই বলেছেন কঙ্গনা। তিনি আরো বলেছেন, ‘অনেক সময় ধরে আমি সংগ্রাম করেছি কিন্তু কোনো কিছুতেই কাজ হচ্ছিল না, আমি কোনো সিনেমারই প্রস্তাব পাচ্ছিলাম না।’

কঙ্গনা রাণৌত বলেছেন, ‘বি’ গ্রেড সিনেমার নায়িকা হিসেবে কাজ শুরু করেছিলাম এবং এখন আমি দেশের (ভারতের) এক নম্বর নায়িকা। আমার সমসাময়িক নায়িকারা এখন কোথায়? যে অবস্থান থেকে কাজ শুরু করেছিলেন সেখান থেকে তাদের কোনো উন্নতি তারা করতে পারেননি। তারা সেখানেই রয়েছে তাদের অবস্থানের কোনো পরিবর্তন হয়নি।’

বিশেষ কারো নাম উল্লেখ না করে দুই বার ভারতীয় জাতীয় পুরস্কার জয়ী এ তারকা বলেন, ‘অন্যান্য অভিনেত্রীরা, যাদের আমার সমসাময়িক বলা হতো, তারা অভিনয় শুরু করেছিল মেগাস্টারদের সঙ্গে। ফলে রাতারাতি তারাও সুপারস্টার বনে যায়। কিন্তু আজও তারা একই অবস্থানে রয়েছেন।’

এক সময় প্রথম সারির তারকার বিপরীতে অভিনয়ের স্বপ্ন দেখতেন এ অভিনেত্রী। কিন্তু এখন সেটার প্রয়োজন বোধ করেন না তিনি। নিজেকেই এখন দামি অভিনেত্রী মনে করেন কঙ্গনা।

‘আমি যখন ক্যারিয়ার নিয়ে সংগ্রাম করছিলাম তখন প্রথম সারির অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করার স্বপ্ন দেখতাম। আশা করতাম শাহরুখ খান, সালমান খান অথবা আমির খানের সঙ্গে যদি আমি সিনেমায় অভিনয় করতে পারতাম! কিন্তু তা হয়নি। এরপর কুইন সিনেমার প্রস্তাব আসে। বিকাশ বেহেলের এই সিনেমাটিই আমার ক্যারিয়ারে পরিবর্তন নিয়ে আসে। এরপর তানু ওয়েডস মানু রিটার্স সিনেমাটিও ভালো প্রভাব ফেলে।’

You Might Also Like