ভাগ্নেকে অপহরণ করল মামা

নিজের রক্তের সম্পর্কের বড় বোনের বাসায় থেকে চার বছর বয়সি ভাগ্নেকে অপহরণ করেছিলেন মামা খোরশেদ আলম (২২)।

অপহরণের পর নিখোঁজ ভাগ্নের সন্ধান চেয়ে মাইকিংও করেছে মামা খোরশেদ। পক্ষান্তরে ভিন্ন মাধ্যমে ভাগ্নেকে মুক্তি দেওয়ার বিনিময়ে নিজ বোনের কাছে ৬ লাখ টাকা মুক্তিপণও দাবি করে। কিন্তু সব কৌশল ব্যর্থ করে দিয়ে পুলিশ উদ্ধার করে অপহৃত শিশু রাইতকে। এবং গ্রেফতার করে অপহরণকারী মামা খোরশেদকে।

চট্টগ্রামের বাকলিয়া থানা এলাকা থেকে গত সোমবার শিশু রাইত অপহরণের পর মঙ্গলবার মধ্যরাতে এই চাঞ্চল্যকর অপহরণ ঘটনার সফল যবনিকা টানতে সক্ষম হন বাকলিয়া থানা পুলিশ।

সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার গভীর রাত পর্যন্ত চাঞ্চল্যকর এই অভিযানের নেতৃত্ব দেন বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহসিন।

বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন রাইজিংবিডিকে জানান, রাইতের বাবা মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসী। তাই নিরাপত্তার স্বার্থে চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানা এলাকায় রাইতের মামা নিজ বোনের সঙ্গে একই বাসায় থাকতো খোরশেদ (২২)।

গত সোমবার আকস্মিকভাবেই অপহরণ হয় চার বছর বয়সি শিশু রাইত। ঘটনার পর পরই রাইতের মা বাকলিয়া থানায় অপহরণের ঘটনা জানিয়ে পুলিশের সহায়তা প্রার্থনা করেন। পাশাপাশি শিশু রাইতের সন্ধান চেয়ে বাকলিয়া থানার বিভিন্ন এলাকায় নিখোঁজ সংবাদ মাইকে প্রচার করা হয়।

রাইতের সন্ধান চেয়ে এই মাইকিং করেন রাইতের মামা খোরশেদ। পক্ষান্তরে অপহরণকারীদের কাছ খেকে রাইতের মুক্তির বিনিময়ে ৬ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয় রাইতের মার কাছে।

ঘটনার পর পরই অপহরণ ও মুক্তিপণ দাবির সূত্র ধরে অভিযানে নামে বাকলিয়া থানা পুলিশ। বাকলিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীনের নেতৃত্বে অভিযানে সহায়তা নেওয়া হয় গোয়েন্দা পুলিশ এবং তথ্য প্রযুক্তির। মঙ্গলবার রাতে পুলিশ নিশ্চিত হয় অপহৃত শিশু রাইতের অবস্থান রয়েছে ফটিকছড়ি উপজেলায়। পরে গোয়েন্দা পুলিশ এবং ফটিকছড়ি থানা পুলিশের সহায়তা ফটিকছড়ি উপজেলা থেকে উদ্ধার করা হয় অপহৃত শিশু রাইরকে এবং গ্রেফতার করা হয় মূল অপহরণকারী খোরশেদকে।

ওসি মোহাম্মদ মহসিন জানান, এটা একটা লোমহর্ষক কাহিনী। মামা কর্তৃক ভাগ্নেকে অপহরণ। আবার ভাগ্নের নিখোঁজ সংবাদ মাইকে প্রচারণ অতপর সেই মামাই অপহরণকারী হিসেবে পুলিশের হাতে গ্রেফতার ও ভিকটিম উদ্ধার হওয়ার মাধ্যমে চাঞ্চল্যকর অপহরণ ঘটনার সমাপ্তি ঘটেছে।

বুধবার সকাল ১১টায় সিএমপি সদর দপ্তরে প্রেস ব্রিফিং করে এই লোমহর্ষক কাহিনীর বিস্তারিত জানানো হবে বলে ওসি মহসিন জানান।

You Might Also Like