ব্রাজিলের প্রাক্তন স্পিকারের ১৫ বছরের কারাদণ্ড

দুর্নীতির কয়েকটি অভিযোগে ব্রাজিলের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের প্রাক্তন স্পিকার এদুয়ার্ডো কুনহাকে ১৫ বছরের বেশি কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার দেশটির একটি নিম্ন আদালতের বিচারক সার্জিয়ো মোরো এই রায় দেন।

আদালত কুনহার বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অর্থপাচার, কর ফাঁকির প্রমাণ পেয়েছেন। রাষ্ট্রীয় জ্বালানি সংস্থা পেট্রোবাসের কাছ থেকে অর্থগ্রহণের বিষয়টিরও সত্যতা মিলেছে। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে জানায়, দেশটিতে ১৯৮৫ সালে স্বৈরাশাসনের পতন হওয়ার পর কুনহাকে সবচেয়ে বড় শাস্তি দেওয়া হলো। এই রায়ের বিরুদ্ধে কুনহার আইনজীবী উচ্চ আদালতে আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন। আপিল করলেও কুনহা জামিন পাবেন না। তবে জনভিত্তির কারণে আপিলে শাস্তি মওকুফের সম্ভাবনা রয়েছে।

দেশটিতে এ ধরনের দুর্নীতির অভিযোগ থাকার পরেও অনেক প্রভাবশালী ব্যক্তি আপিলের পরে দায় মুক্তি পেয়েছেন। সেই তালিকায় আছেন সাবেক দুই প্রেসিডেন্ট দিলমা রুসেফ ও লুলা ডি সিলভার নাম।

রয়টার্সের বরাত দিয়ে ডেইলি মেইল জানায়, ব্রাজিলের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট দিলমা রুসেফের দুর্নীতির অভিযোগ সফলভাবে সামনে নিয়ে আসেন কুনহা। সে কারণে তার ওপর এমন চাপ আসতে পারে। তিনি দুর্নীতির অভিযোগে রুসেফের অভিসংশন প্রস্তাবও গ্রহণ করেছিলেন। এরপর পার্লামেন্টে ৬১-২০ ভোটে হেরে গিয়ে পদচ্যুত হন তিনি। পরে রুসেফের ভাইস প্রেসিডেন্টে মাইকেল টিমার সেই পদে অধিষ্ঠিত হন।

You Might Also Like