‘ব্যাংকে দুর্নীতি বিচ্ছিন্ন ঘটনা, এবং তা ঘটবেই’

ব্যাংকিংখাতে দুর্নীতিকে ‘বিচ্ছিন্ন ঘটনা’ এবং তা ‘ঘটবেই’ বলে মন্তব্য করেছেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই’র সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে মতিঝিল ফেডারেশন ভবনে বিসিএস ফরেন ক্যাডারদের সৌজন্যে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্যকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

কাজী আকরাম বলেন, ‘লাখ লাখ টাকার লেনদেন যেখানে হয়, সেখানে দু’-একজন মানুষের টাকা দেখে লোভ লাগতেই পারে। সে লোভের কারণে দু’-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটে। এটা ঘটছে, বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটবেই।’

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ডিরেক্টর জেনারেল ও ভাইস প্রিন্সিপাল মো. তৌহিদুল ইসলাম, এফবিসিসিআই’র সহ-সভাপতি হেলাল উদ্দিনসহ সংগঠনটির পরিচালক ও বিসিএস ফরেন ক্যাডাররা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

দেশে বিনিয়োগ বাড়াতে করণীয় সম্পর্কে উপস্থিত বিসিএস ফরেন ক্যাডারদের প্রশ্নের প্রেক্ষিতে এফবিসিসিআই’র সভাপতি বলেন, ‘দেশের অবকাঠামোর যত উন্নয়ন হবে, ততবেশি আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ বিনিয়োগ বাড়বে। বর্তমানে অবকাঠামোর উন্নয়ন হচ্ছে। এখন বৈদ্যুতিক লোডশেডিং কম। অর্থনৈতিক অঞ্চলের গ্যাস সংযোগের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নিজে তদারকি করছেন। তাই মনে করি আন্তর্জাতিক বিনিয়োগ আসবে এবং অভ্যন্তরীণ বিনিয়োগে যে প্রতিবন্ধকতা রয়েছে তা কেটে যাবে।’

বিদেশিরা বাংলাদেশের সিরামিক, চামড়া, সাইকেল ফ্যাক্টরি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী। এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যে চীন, জাপান ও ইতালির সরকারের সঙ্গে চুক্তি করেছে বলে কাজী আকরাম উদ্দিন জানান।

অনুষ্ঠানে মো. তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের যে মানবসম্পদ রয়েছে তা কাজে লাগাতে হবে। অনেক মেধা পড়ে আছে তাদের তেমন খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে না, তা নেওয়াটা জরুরি।

২০২১ সালে দেশ মধ্যম আয়ের হলে, তখন যেন সমস্যা না ঘটে- তা মাথায় রেখে কাজ করার তাগিদ দিয়ে তিনি বলেন, ‘২০২১ সালে আমাদের যে লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে, মনে করেন সে লক্ষ্যমাত্রায় পৌছালাম। তখন কি হবে? এলডিসি হিসেবে এখন যে সুযোগ পাই, তখন তা থাকবে না। তাই এখন থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে- যাতে মধ্যম আয়ের দেশ হওয়ার পর সমস্যায় পড়তে না হয়।’

অনুষ্ঠানে ফরেন ক্যাডাদের বিদেশে নিজ দেশের শ্রমিকদের বিপদে এগিয়ে আসা এবং তাদের সমস্যা সমাধানে আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

You Might Also Like