বেনাপোল সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত, বিজিবির প্রতিবাদ

যশোর জেলার বেনাপোল সীমান্তে শহিদুল ইসলাম ফনি (৩৫) নামে এক বাংলাদেশি যুবককে গুলির পর বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ। নিহত শহিদুল পুটখালি পশ্চিমপাড়া গ্রামের ছবেদ আলীর ছেলে।

আজ (শনিবার) ভোরে বেনাপোলের পুটখালি সীমান্তের বিপরীতে ভারতের আংরাইল সীমান্তের ৭০/৭ এস পিলালের কাছে এ ঘটনা ঘটে।
বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বা বিজিবি জানিয়েছে, শনিবার ভোরে একদল বাংলাদেশি ব্যবসায়ী ভারত থেকে গরু নিয়ে দেশে ফিরছিলেন। পথে আংরাইল সীমান্তের ভারতীয় বিএসএফ সদস্যরা তাদের তাড়া করে। এ সময় অন্যরা পালিয়ে বাংলাদেশে ফিরে আসতে পারলেও শহিদুল তাদের হাতে আটক হন। এসময় বিএসএফ সদস্যরা তাকে গুলি করে ও পরে রাইফেলের বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করে লাশ ভারতীয় সীমান্তের মাঠে ফেলে রেখে যায়। এ সময় তার সঙ্গীরা কৌশলে লাশ বাংলাদেশ সীমান্তে নিয়ে আসে।
খুলনা ২১ বিজিবির ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল আরিফুল জানান, ভারত সীমান্তে বাংলাদেশি চোরাকারবারীকে গুলি করে হত্যা করেছে বিএসএফ। এ ব্যাপারে বিজিবির পক্ষ থেকে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

বেনাপোল পোর্ট থানার এএআই জহিরুল হক জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গত ১৪ জুলাই কুড়িগ্রামের রৌমারী সীমান্তে পাথর নিক্ষেপে এক বাংলাদেশিকে হত্যা করে বিএসএফ। নিহত রাশেদুল ইসলাম (২৭) রৌমারী সদর ইউনিয়নের পূর্ব ইজলামারী এলাকার নয়ারচর গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে।

You Might Also Like