বেনজির ভুট্টোর হামলাকারী নিহত

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর ওপর ভয়াবহ বোমা হামলায় জড়িত একজন তালেবান কমান্ডারকে হত্যা করার দাবি করেছে দেশটির পুলিশ। মঙ্গলবার পাক পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ জানায়, “করাচির মাঙ্ঘুপির এলাকায় গতরাতে এক ঘন্টাব্যাপী বন্দুকযুদ্ধে তালেবান কমান্ডার ফিরদৌস খান নিহত হয়।”
২০০৭ সালের অক্টোবরে করাচিতে এক ভয়াবহ বোমা হামলায় বেনজির ভুট্টোর ১৩৯ জন সমর্থক নিহত ও ৪৫০ জন আহত হয়। দীর্ঘ আট বছরের স্বেচ্ছা নির্বাসিত জীবন শেষ করে দেশে ফেরার পথে ওই হামলার মুখে পড়েন বেনজির। তিনি জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করার কিছুক্ষণ পরই তাকে স্বাগত জানাতে আসা হাজার হাজার মানুষের ভিড়ের মধ্যে পরপর দু’টি বোমা হামলা চালানো হয়। তবে সে হামলায় অক্ষত অবস্থায় প্রাণে বেঁচে যান বেনজির। অবশ্য ওই ঘটনার দু’মাস পর রাওয়ালপিন্ডিতে এক নির্বাচনি জনসভায় ভাষণ দেয়ার পর হুড খোলা গাড়িতে ফিরে যাওয়ার পথে আততায়ীর গুলি ও বোমা হামলায় প্রাণ হারান সাবেক পাক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো।
পাকিস্তান পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের কর্মকর্তা উসমান বাজওয়া মঙ্গলবার জানিয়েছেন, বেনজিরের দেশে ফেরার জনসভায় বোমা হামলাকারীকে প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র দিয়েছিল তালেবান কমান্ডার ফিরদৌস খান। সোমবার রাতে তাকে হত্যা করার অভিযানের সময় আরো বেশ কয়েকজন তালেবান কমান্ডার পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।
তৎকালীন পাক সেনাশাসক জেনারেল পারভেজ মুশাররফ করাচির ওই হামলার জন্য সে সময়কার তালেবান প্রধান বাইতুল্লাহ মেহসুদকে দায়ী করেছিলেন। অবশ্য মেহসুদ ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন। পরবর্তীতে বাইতুল্লাহ মেহসুদ এক মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন। সূত্র: আইআরআইবি।

You Might Also Like