বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন হবে না রাশিয়া : পুতিন

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন হবে না রাশিয়া। তার দেশ ‘আইরন কার্টেইন’-এও ফিরবে না। নিজস্ব অ্যাজেন্ডা নিয়ে আন্তর্জাতিক বিশ্বে নিজের অবস্থান ধরে রাখবে আমাদের দেশ।

উল্লেখ্য, আইরন কার্টেইন বলতে বোঝায়, দ্বিতীয় বিশ্বের পর ১৯৪৫ সাল থেকে ইউরোপের দুটি ভাগে ভাগ হয়ে যাওয়া। এসময় সাবেক সোয়িভেত ইউনিয়ন পশ্চিমা বিশ্ব থেকে নিজেকে গুঁটিয়ে নেয়। নিজস্ব অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামরিক ব্যবস্থা নিয়ে এগোয় দেশটি। এ ছাড়া রাশিয়ার প্রত্যন্ত প্রদেশগুলোর সঙ্গে পশ্চিমা বিশ্বের সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ থাকে। এসময়ে পশ্চিমা বিশ্বের সঙ্গে সোয়িভেত ইউনিয়নের যে বৈরী সম্পর্ক বিরাজ করছিল, তা স্নায়ুযুদ্ধ নামে পরিচিত। ১৯৯১ সালে স্নায়ুযুদ্ধের অবসানের মধ্য দিয়ে রাশিয়া পশ্চিমা বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করে।

ইউক্রেন সংকট নিয়ে রাশিয়ার ওপর ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্রের একের পর এক নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর আন্তর্জাতিক মহলে আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল, আরো একটি স্নায়ুযুদ্ধের মুখে পড়েছে বিশ্ব।

সবশেষ অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে অনুষ্ঠিত জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা পুতিনকে হুঁশিয়ার করে বলেন, ইউক্রেনে হস্তক্ষেপ থেকে রাশিয়া যদি বেরিয়ে না আসে, তবে তাদরে ওপর আরো কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে।

ওবামার এ হুঁশিয়ারির পর এবং অস্ট্রেলিয়ায় পুতিনকে কোণঠাসা করে ফেলার পর নতুন স্নায়ুযুদ্ধের আশঙ্কা আরো প্রকট হয়ে ওঠে। রোববার পুতিন এ বিষয়ে মুখ খুললেন এবং স্নায়ুযুদ্ধের আশঙ্কা নাকচ করে দিলেন।

পুতিন বলেন, ‘কোনো অবস্থাতেই আমরা আর আইরন কার্টেইনের দিকে ফিরব না এবং আমাদের পথে কেউ প্রাচীর তুলতে পারবে না। এ একেবারেই অসম্ভব।’

শনিবার রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেন, রাশিয়ায় ক্ষমতার পালাবদলের চেষ্টা করছে পশ্চিমা দেশগুলো। এর পরের দিন রোববার পুতিন স্নায়ুযুদ্ধের আশঙ্কা প্রত্যাখ্যান করে দিলেন।

ইউক্রেনের রাশিয়াপন্থি স্বাধীনতাকামীদের রাশিয়া সাহায্য করছে বলে যে অভিযোগ করা হচ্ছে, রাশিয়া তা বরাবরই প্রত্যাখ্যান করে আসছে। সবশেষ শনিবার ইউক্রেন দাবি করে, রাশিয়ার সাড়ে ৭ হাজার সেনা দেশটিতে অবস্থান করছে, যারা বিচ্ছিন্নতাবাদী স্বাধীনতাকামীদের হয়ে যুদ্ধ করছে।

You Might Also Like