বিলাসি ভ্রমণে যাচ্ছেন সৌদি রাজা : সঙ্গী ১,৫০০

সৌদি আরবের রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজ আরো একটি বিলাসি ভ্রমণে ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন। এ সফরে তার সঙ্গে থাকবেন ১,৫০০ মানুষ এবং নয়দিনের আয়েশি অবকাশে তিনি বহু মিলিয়ন ডলার অর্থ খরচ করবেন।

ইন্দোনেশিয়ার মন্ত্রিপরিষদ সচিব প্রামোনো আনুং মঙ্গলবার জানিয়েছেন, রাজা সালমান আগামী পহেলা মার্চ থেকে ৯ মার্চ পর্যন্ত ইন্দোনেশিয়া সফর করবেন। এর মধ্যে তিনি শেষ ছয়দিন বালি দ্বীপে অবকাশযাপন করবেন। রিয়াদের কর্মকর্তারা অবশ্য এখনো এ সফরের কথা নিশ্চিত করেন নি। তবে রাজা সালমান আগেও এ ধরনের বিলাসি ভ্রমণ করেছেন এবং অবকাশ যাপনের নামে অর্থ ওড়াতে তিনি মোটেই কুণ্ঠাবোধ করেন না।

৮০ বছরের অশীতিপর বৃদ্ধ রাজা সালমান গত বছর ৩০০ সঙ্গী নিয়ে তুরস্ক ভ্রমণে যান। সে সময় রাজা সালমান যে হোটেল স্যুটে ছিলেন তা প্রস্তুত করতেই তিনি এক কোটি ডলার খরচ করেছিলেন। স্থানীয় গণমাধ্যম সে সময় জানিয়েছিল, আংকারা ও ইস্তাম্বুলে রাজা সালমান ‌এবং তার সঙ্গীদের ঘোরাফেরার জন্য ৫০০ বিলাসবহুল গাড়ি ভাড়া করা হয়। এছাড়া, একটি কার্গো বিমানে করে আগেভাগেই রাজার ব্যক্তিগত জিনিসপত্র তুরস্কে পৌঁছানো হয়। ওই ভ্রমণে তিনি প্রায় দুই কোটি ডলার খরচ করেছিলেন। একই ধরনের বিলাসি ভ্রমণ করেছিলেন মিশরের শার্মুশ শেখ অবকাশযাপন কেন্দ্রে। এ কেন্দ্রটি লোহিত সাগরের তীরে অবস্থিত।

২০১৫ সালের গ্রীষ্মে রাজা সালমান দক্ষিণ ফ্রান্সের সমুদ্র সৈকতে তিন সপ্তাহের অবকাশযাপনে গিয়ে বিশ্ব গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছিলেন। সে সময় রাজার অবকাশ পরিপূর্ণভাবে নির্বিঘ্ন ও আরামদায়ক করার জন্য সেখানে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়। অর্থনৈতিক দিক দিয়ে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও আকর্ষণীয় ওই পর্যটন এলাকায় এ ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা এবং সমুদ্র উপকূল এলাকায় সাধারণ মানুষের প্রবেশ নিষিদ্ধ করায় মানুষ ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। ফলে সেখানে রাজার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ হয়। সে সময় বিক্ষোভকারীরা বলেছিলেন, সৌদি রাজা মনে করেছেন যে, অর্থ দিয়ে সবকিছু কেনা যায়। বিক্ষোভের মুখে রাজা ভ্রমণ সংক্ষিপ্ত করে গোপনে মরক্কো চলে যান।

বিশ্বব্যাপী তেলের দাম পড়ে যাওয়ায় রাজা সালমানের দেশ যখন অর্থ সংকটে ভুগছে তখন তিনি এসব বিলাস ভ্রমণ করে বেড়াচ্ছেন। এছাড়া, ইয়েমেনে প্রায় দুই বছর ধরে প্রাণঘাতী যুদ্ধ চালাতে গিয়ে সৌদি আরবের অর্থনৈতিক অবস্থা করুণ হয়েছে।#

পার্সটুডে

You Might Also Like