বিটিআরসিকে ১ হাজার কোটি টাকা দিচ্ছে গ্রামীণফোন

আদালতের নির্দেশ অনুসারে আগামী রবিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)-কে এক হাজার কোটি টাকা দেবে মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন। শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় প্রতিষ্ঠানটি।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) গ্রামীণফোনের রিভিউ আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিটিআরসিকে এক হাজার কোটি টাকা দেওয়ার নির্দেশ দেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

গ্রামীণ ফোনের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গ্রামীণফোন বাংলাদেশের আইনি ব্যবস্থা-সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশকে শ্রদ্ধা করে। বিটিআরসির আদালতে আবেদন করা চাপ থেকে সুরক্ষা পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। বিটিআরসি গ্রামীণফোনের কার্যক্রমকে সীমাবদ্ধ করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে অনাপত্তিপত্র বাতিল করা, লাইসেন্স বাতিলকরণের কারণ দর্শানোর নোটিশ জারি, নম্বর সিরিজের পুনর্ব্যবহারের অনুমতি না দেওয়া এবং প্রশাসক নিয়োগের হুমকি দেওয়া। এই পদক্ষেপগুলো গ্রাহকের এবং ব্যবসায়িক অংশীদারদের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে এবং ব্যবসার পরিবেশ নষ্ট করেছে। একইসঙ্গে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ হ্রাস করেছে। কোর্টের নির্দেশনা মেনে গ্রামীণফোন টাকা জমা দিচ্ছে। গ্রামীণফোন আশা করে, এরপর বাধা ছাড়াই প্রতিষ্ঠানটি ব্যবসায়িক কার্যক্রম চালাতে পারবে।

উল্লেখ্য, বিটিআরসির নিরীক্ষা দাবির সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকার মধ্যে গ্রামীণফোনকে সোমবারের (২৪ ফেব্রুয়ারি) মধ্যে ১০০০ কোটি টাকা পরিশোধ করার নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) গ্রামীণফোনের করা রিভিউ আবেদনের শুনানিতে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন সাত বিচারকের আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। সেইসঙ্গে পরবর্তী আদেশের জন্য ২৪ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন আদালত।

You Might Also Like