বিএনপি দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চাচ্ছে: নাসিম

বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপি দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চাচ্ছে। রায় নিয়ে কেউ অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করলে আওয়ামী লীগ নয় জনগণই তাদের মোকাবিলা করবে।

আজ (মঙ্গলবার) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উন্নীতকরণ এর উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ যেকোনো মুহূর্তে নির্বাচন করতে প্রস্তুত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জোটবদ্ধ হয়েই আওয়ামী লীগ নির্বাচন করবে। বিএনপি মুখে যাই বলুক খালেদা জিয়াকে নির্বাচনে আসতেই হবে। তা না হলে তাদের দলের অস্তিত্ব থাকবে না।

একই সুরে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, খালেদা জিয়ার মামলার রায়কে কেন্দ্র করে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার চেষ্টা করা হচ্ছে। রায়ের আগে পরে কোনো ধরনের অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে চাইলে দেশের জনগণ তা মেনে নেবে না।

মঙ্গলবার রাজধানীর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উদ্যোগে মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের ঢাকা জেলার শিক্ষকদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় হানিফ এ মন্তব্য করেন।
আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রকে কঙ্কালে পরিণত করেছে: রিজভী

ওদিকে, বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রকে কঙ্কালে পরিণত করেছে। গণতন্ত্রশূন্য দেশে প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনকে আটকিয়ে রাখতেই পুলিশকে ক্ষমতাবান করা হয়েছে।’

আজ (মঙ্গলবার) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী বলেন, আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলার রায়কে কেন্দ্র করে এখন পর্যন্ত সারাদেশে ১১ শতাধিক নেতাকর্মীকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী গ্রেফতার করেছে। সরকার মনে হয় রায় নির্ধারণ করে রেখেছে। আর এ জন্যই এর প্রতিক্রিয়ার অজানা ‘আতঙ্কে’ বিএনপি নেতা-কর্মীদের ওপর বুলডোজার চালাচ্ছে।

রিজভী বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর ভর করে সরকার তার স্বৈরাচারী ও গণতন্ত্রবিনাশী ইচ্ছা পূরণ করছে। সরকার রাষ্ট্রীয় শক্তিকে আয়ত্তে নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা; সমাবেশ ও চলাচলের স্বাধীনতা ঘরোয়া বৈঠক, এমনকি ধর্মীয় অনুষ্ঠান পর্যন্ত বন্ধ করে দিচ্ছে।’

You Might Also Like