বিএনপির মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ, আটক ১৫

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ‘মিথ্যা মামলায়’ সাজার প্রতিবাদ এবং তার ‘কারামুক্তির’ দাবিতে ফরিদপুরে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশ বাধা দিয়েছে।

এক পর্যায়ে বিএনপির কর্মীদের উপর পুলিশ লাঠিচার্জ ও কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এতে দুই সাংবাদিকসহ অর্ধশত ব্যক্তি আহত হয়। পুলিশ ১৫ নেতা-কর্মীকে আটক করেছে।

বিক্ষোভ মিছিলে নেতৃত্বে ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদ ইসলাম রিংকু ও ফরিদপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোদারেছ আলী ইছা।

শ্যামা ওবায়েদ ইসলাম রিংকু বলেন, ‘‘বেলা ১১টার দিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ফরিদপুর সুপার মার্কেটের সামনে থেকে মিছিল বের করে প্রেসক্লাবে যাওয়ার সময় পুলিশ এসে লাঠিচার্জ শুরু করে। এ সময় লাঠিচার্জ ও গুলিতে অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী আহত হয়। পরে নেতা-কর্মীরা আমাকে রক্ষা করে পাশে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে সেখান থেকে ১৪/১৫ জন বিএনপি নেতা-কর্মীকে আটক করে পুলিশ।’’

তিনি দাবি করেন, ফরিদপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোদারেছ আলী ইছা, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক সৈয়দ জুলফিকার হোসেন জুয়েল, কোতোয়ালি থানা বিএনপির সভাপতি রওফুন নবী, লস্করদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা বাবুল তালুকদার মিঠু, মাহফুজুর রহমান, লিটন বিশ্বাস, শেখ সুলতান মাসুদ, ইয়াকুব সেখসহ অন্তত ১৫ জনকে আটক করা হয়েছে।

তিনি জানান, শান্তিপূর্ণ মিছিলে এমনভাবে লাঠিচার্জ করবে তা তারা ভাবতে পারেননি। সরকার বিএনপি ও খালেদা জিয়াকে ভয় পায় বলে এমন ন্যক্কারজনক ঘটনার জন্ম দিচ্ছে।

You Might Also Like