বাল্টিমোরে দাঙ্গা : জরুরি অবস্থা জারি

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড রাজ্যের বাল্টিমোরে জরুরি অবস্থা জারি করেছে রাজ্য গভর্নর। বর্ণবাদী দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ায় সোমবার মধ্যরাতে তিনি জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন।

পুলিশি হেফাজতে একজন কৃষ্ণাঙ্গ গুরুতর আহত হয়ে নিহত হওয়ার জেরে বাল্টিমোরে বর্ণবাদী দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে। সোমবার তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হওয়ার পর দাঙ্গা আরো ফুঁসে ওঠে। এর জেরে সোমবার রাত থেকে সপ্তাহব্যাপী জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর ৫ হাজার সদস্যকে বাল্টিমোরের নিরাপত্তা নিশ্চিতে নিয়োগ করা হচ্ছে।

সোমবার রাতে বাল্টিমোরে একটি নির্মাণাধীন ভবনে আগুন দেয় বিক্ষুব্ধ কৃষ্ণাঙ্গ জনতা। এর আগে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে তারা। সে সময় ১৫ জন আহত হয়।

২৫ বছর বয়সি আফ্রিকান বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক ফ্রেডি গ্রে হাজতে থাকা অবস্থায় পুলিশের আঘাতে আহত হন। প্রায় এক সপ্তাহ কোমায় থাকার পর ১৯ এপ্রিল তিনি মারা যান। এই মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয়ে মেরিল্যান্ডের বিচার বিভাগ তদন্ত করছে। ঠিক কখন এবং কীভাবে তার ধমনী নিশ্চল হয়ে পড়ে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ফ্রেডি গ্রের মৃত্যু নিয়ে বিচারাধীন মামলায় অভিযুক্ত ছয় পুলিশ সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

এদিকে উদ্ভূত দাঙ্গা নিয়ে বাল্টিমোরের মেয়র স্টেফানি রাওলিংস-ব্লেক বলেন, ‘যারা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের মাধ্যমে বিচার চায়’ এবং ‘যারা সহিংসতাকে উসকে দিতে চায়’ তাদের মধ্যে পরিষ্কার পার্থক্য রয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনী সব ধরনের প্রচেষ্টা গ্রহণ করবে।

বাল্টিমোরের কিছু কিছু এলাকায় লুট ও ডাকাতির ঘটনার কথা স্বীকার করেছেন রাওলিংস-ব্লেক। বেশ কিছু গাড়ি ও দোকানপাট পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, এসব দৃশ্য হৃদয় ভেঙে দিয়েছে।

তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন।

You Might Also Like