বাবা ঘুষ না দেয়ায় দলে জায়গা পাননি কোহলি

ভারতে খেলাধুলার নিম্নপর্যায়ে এখনও দুর্নীতি চলে। দেশটির জাতীয় দলের ক্রিকেট অধিনায়ক বিরাট কোহলির কথায় তা স্পষ্ট হলো। তিনি বললেন, একসময় তাকে এমনই দুর্নীতির শিকার হতে হয়। তবে তার বাস্তব জীবনের সুপারহিরো বাবা সেটির কাছে তাকে মাথা নত করতে দেননি।

সম্প্রতি ভারতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রীর সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম লাইভে অংশ নেন কোহলি। ওই সময় তিনি বলেন, যোগ্য হওয়া সত্ত্বেও একবার দল নির্বাচনে তাকে বিবেচনা করা হয়নি। কারণ তার বাবা ঘুষ দিতে অস্বীকার করেন।

তবে সেটি কোন পর্যায়ের দল নির্বাচনে সেই কথা উল্লেখ করেননি কোহলি। ওই সম্পর্কে নির্দিষ্ট কোনো তথ্য দেননি তিনি। তবে পরিষ্কার করেন, দিল্লিতে এমন অসাধু কর্মকাণ্ড হরহামেশা হয়ে থাকে।

ভিকে বলেন, আমার রাজ্যে অনেক সময় এমন কাজকর্ম হয়। কখনই যা ঠিক নয়। একসময় দল নির্বাচনের মাপকাঠি হিসেবে কোনো একজন নিয়মের তোয়াক্কা করেননি। উনি বাবাকে বলেন, আমার সুযোগ পাওয়ার মতো সক্ষমতা রয়েছে। তবে দলে জায়গা নিশ্চিত করার জন্য উপরি কিছুর (সম্ভবত ঘুষ) প্রয়োজন।

টিম ইন্ডিয়ার কাপ্তান বলেন, আমার বাবা একজন সৎ মধ্যবিত্ত মানুষ। সফল আইনজীবী হওয়ার জন্য সারাজীবন কঠোর পরিশ্রম করেছেন। স্বভাবতই উনি বুঝতেই পারেননি এ বাড়তি কিছুর মানেটা কী? আমার বাবা স্পষ্ট জানিয়ে দেন– বিরাটকে দলে নিলে নিখাদ দক্ষতার ওপর ভিত্তি করেই নির্বাচন করতে হবে। আমি আপনাদের বাড়তি কিছু দিতে রাজি নই।

পরক্ষণেই কোহলি বলেন, সেবার আমি দলে জায়গা পাইনি। খুব কেঁদেছিলাম, একরকম ভেঙে পড়েছিলাম। তবে সেই ঘটনা আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছে। সেদিনই বুঝি, সফল হওয়ার জন্য আমাকে অসাধারণ হয়ে উঠতে হবে। আজ যা কিছু পেয়েছি, সবই কঠোর পরিশ্রম ও প্রচেষ্টার ফল। আমার বাবাই আমাকে সঠিক পথের সন্ধান দেন।

তথ্যসূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

You Might Also Like