বাংলা ভাইয়ের সেকেন্ড ইন কমান্ড সাত্তার গ্রেপ্তার

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামা’তুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) মৃত্যুদ-প্রাপ্ত অপারেশন কমান্ডার বাংলা ভাইয়ের সেকেন্ড ইন কমান্ড আবদুস সাত্তারকে (৫০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার ভোরে বাগমারায় তার নিজ বাড়ি থেকে সাত্তারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। রাজশাহীর পুলিশ সুপার নিশারুল আরিফ দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আবদুস সাত্তারের বিরুদ্ধে জঙ্গি সংশ্লি¬ষ্টতার অভিযোগ রয়েছে বলে বাগমারা থানা পুলিশ জানিয়েছে। তিনি জেএমবির মৃত্যুদ-প্রাপ্ত শীর্ষ নেতা সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাইয়ের অত্যন্ত আস্থাভাজন হিসেবেও পরিচিত ছিলেন।

বাগমারা থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দেশব্যাপী জঙ্গি দমন অভিযানের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার ভোরে থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল অভিযান চালায়। পুলিশের এ দলটি উপজেলার মাড়িয়া ইউনিয়নের সাঁকোয়া গ্রামে আবদুস সাত্তারের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়।

স্থানীয় লোকজন জানান, আবদুস সাত্তার ২০০৪ সালের দিকে জেএমবির শীর্ষ নেতা শায়খ আবদুর রহমান ও সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাইয়ের সঙ্গে হাত মিলিয়ে বাগমারার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে নিরীহ লোকজনকে ধরে নিয়ে গিয়ে হকিস্টিক এবং লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে নির্যাতন করতেন। এতে কয়েকজনের মৃত্যুও হয়েছে।

জানা গেছে, ২০০৪ সালের দিকে বাগমারা ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় জেএমবি সদস্যরা ২৪ জন নিরীহ ব্যক্তিকে খুন করে। সে সময় জেএমবির প্রতিটি অভিযানে জেএমবির শীর্ষ নেতা সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাইয়ের সঙ্গে অভিযানে অংশ নিত আবদুস সাত্তার। তবু রহস্যজনক কারণে তার বিরুদ্ধে থানায় বড় কোনো মামলা করা হয়নি। শুধু বাগমারা থানায় তার বিরুদ্ধে ৫টি ছিনতাইয়ের মামলা রয়েছে।

বাগমারা থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ জানান, মঙ্গলবার দুপুরে শীর্ষ জেএমবি নেতা আবদুস সাত্তারকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

You Might Also Like