বাংলায় আগুন লাগানোর চেষ্টা হলে ছেড়ে কথা বলব না: মমতা

‘বাংলায় আগুন লাগানোর চেষ্টা হলে ছেড়ে কথা বলব না’ বলে সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টিকারীদের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি আজ (বৃহস্পতিবার) কোলকাতায় দলীয় এক বিশাল সমাবেশে বিজেপি তথা কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন। বিজেপি শাসিত গুজরাটে সম্প্রতি দলিতদের ওপর যে অত্যাচার হয়ে সে প্রসঙ্গ তুলে ধরে ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান মমতা।

তিনি বলেন, ‘গুজরাটে দলিতদের ওপর অত্যাচার হয়েছে, তারা গরুর চামড়া নিয়ে ব্যবসা করে, মুচির কাজ করে দীর্ঘকাল ধরে। তাদের দড়ি দিয়ে গাড়িতে বেঁধে টেনে নিয়ে অত্যাচার করা হয়েছে।’

তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘কেউ কেউ গো-রক্ষা কমিটির নামে, জাগরণ মঞ্চের নামে আইনশৃঙ্খলা নিজের হাতে তুলে নিয়ে এলাকায় এলাকায় ঝগড়া বাঁধানো এবং সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা করার চেষ্টা করছে। আমার কাছে সম্প্রতি খবর এসেছে কেউ কেউ কোনো একটা রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে এবং তাদের সিস্টার অর্গানাইজেশন নিয়ে বাড়ি বাড়ি যাচ্ছে এবং সেসব জায়গায় গিয়ে বলছে ‘তোমার বাড়িতে ক’টা গরু আছে?’

মমতা প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘ওদের জিজ্ঞাসা করার কী অধিকার আছে? কার বাড়িতে ক’টা গরু আছে তারা বুঝবে।’ মমতা বলেন, ‘কেউ গরু খায় না, ছাগল খায় সেসব ঠিক করতে তোমাকে কে বলেছে? আমি ছাগল খেলে দোষ নেই, ও গরু খেলে দোষ, এ সব তোমাকে ঠিক করতে কে বলেছে? আমি মুরগি খেলে দোষ নেই, কেউ মুরগির ডিম খেলে দোষ, কেন? আমি ভেজ খাই, কেউ ননভেজ খায়। আমি শাড়ি পরি, কেউ সালোয়ার-কামিজ পরে। আমরা ধুতি পরি, কেউ লুঙ্গি পরে, তাতে তোমার কী? এসব তো মানুষের নিজস্ব স্বাধীনতা!’

তিনি বলেন, ‘আমি স্পষ্ট জানাচ্ছি, এ ধরণের জরিপ কেউ যদি করার চেষ্টা করে, বাড়ি বাড়ি আগুন লাগানোর চেষ্টা করে, আমরা রাজনৈতিকভাবে এর মোকাবিলা করব। আমরা ছেড়ে কথা বলব না। কোনো আগুন আমরা লাগাতে দেব না।’

মমতা বিজেপি সরকারকে ইঙ্গিত করে বলেন, ‘আপনারা কে? কয়েকটা লোক ঠিক করবে ভারতে কে কী খাবে আর কে কী খাবে না?’

তিনি কেন্দ্রীয় বিজেপি সরকারের সমালোচনা করে বলেন, ‘শিক্ষা থেকে শুরু করে আজকে সব জায়গায় গৈরিক মেরুকরণ শুরু হয়ে গেছে। যে সরকারে থাকে তার দায়িত্ব, দায়বদ্ধতা অনেক বেশি হয়। সরাকারেও থাকবেন, আর সবাইকে চমকাবেন! মনে রাখবেন, সরকারে আপনারা আজ আছেন কাল নাও থাকতে পারেন। আজ আছেন, কালকে মানুষ ছুঁড়ে ফেলে দেবে।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, ‘কথা না শুনলে ওরা পিছনে (কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা) সিবিআই লাগায়, ইডি লাগায়। সব ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকার নাক গলাচ্ছে। ফেডারেল স্ট্রাকচারকে নষ্ট করে দিচ্ছে। আর খালি ভয় দেখাচ্ছে! নিজেরা কোনও কাজ করে না। সর্বশিক্ষা অভিযানের টাকা বন্ধ করে দিয়েছে। টাকা ছাপাচ্ছে আর পিছনে এজেন্সি লাগাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আশি হাজার লোক, শিল্পপতি দেশ ছেড়ে চলে গেছে। ব্ল্যাক মানি ফেরাতে গিয়ে দেশ থেকে হোয়াইট মানি বেরিয়ে যাচ্ছে বলেও কেন্দ্রীয় সরকারকে মমতা কটাক্ষ করেন।

You Might Also Like