বাংলাদেশ সফর নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল

সব জল্পনা ও সংশয়ের অবসান ঘটিয়ে অবশেষে বাংলাদেশ সফর নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)।

ইএসপিএন-ক্রিকইনফো জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে ইংল্যান্ড টেস্ট দলের অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক এউইন মরগান, ইসিবির ক্রিকেট পরিচালক অ্যান্ড্রু স্ট্রাউস, ইসিবির প্রধান নির্বাহী টম হ্যারিসন এক সভায় বসেন। সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ডেভিড ল্যাথারডেল ও জন কারও। সভায় বাংলাদেশ সরকারের নিরাপত্তাব্যবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত জানান রেগ ডিকাসন।

সভা শেষে অ্যান্ড্রু স্ট্রাউস বলেন, ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর পরিকল্পনামতোই এগিয়ে যাবে। অবশ্য সিরিজের শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রাখবেন তারা।’

দুটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলতে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফরে আসার কথা। দিন-তারিখও ঠিক হয়েছে। ৭ ও ৯ অক্টোবর মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে প্রথম দুটি ওয়ানডে ম্যাচ। তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচটি হবে ১২ অক্টোবর চট্টগ্রামে। এর পর ২০ থেকে ২৪ অক্টোবর চট্টগ্রামে প্রথম টেস্ট এবং ঢাকায় ২৮ অক্টোবর থেকে ১ নভেম্বর দ্বিতীয় টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে।

গত ১ জুলাই গুলশানে স্প্যানিশ রেস্তোরাঁ হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলায় ১৭ বিদেশিসহ ২০ পণবন্দি নিহত হওয়ার পর বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে শংকা প্রকাশ করে ইংল্যান্ড দল। বাংলাদেশে সিরিজ খেলতে আসার বিষয়ে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলবে বলেও জানিয়েছিল তারা। তখনই অনিশ্চয়তা তৈরি হয়, ইংল্যান্ড বাংলাদেশ সফরে আসবে কি না। তাই বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ১৭ আগস্ট ঢাকায় আসে ইংল্যান্ডের নিরাপত্তা-সংক্রান্ত প্রতিনিধিদল। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামফতুল্লা স্টেডিয়াম ও চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম ও হোটেল দেখে তিন সদস্যের ওই প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ ছাড়ে ২০ আগস্ট। ,

দেশে ফেরার আগে তারা এদেশীয় গণমাধ্যমকে সন্তুষ্টির কথা জানালেও, দেশে ফিরে গিয়ে বুধবার ভেন্যুর বাইরের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন ইংল্যান্ডের নিরাপত্তা-সংক্রান্ত প্রতিনিধিদলের প্রধান রেগ ডিকসন। টেলিগ্রাফ পত্রিকার প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, হোটেল বা স্টেডিয়ামের নিরাপত্তা নিয়ে কোনো আপত্তি তোলেনি ইংল্যান্ডের নিরাপত্তা বিষয়ক প্রতিনিধিদল। হোটেল বা স্টেডিয়ামে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলা সম্ভব। কিন্তু তাঁদের মূল দুশ্চিন্তা যাতায়াত নিয়ে। এয়ারপোর্ট থেকে টিম হোটেল বা টিম হোটেল থেকে স্টেডিয়ামে যাওয়ার সময় অপ্রত্যাশিত কোনো পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে কি না, তা নিয়েই নাকি চিন্তিত ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ডের নিরাপত্তাবিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা রেগ ডিকসন। ঢাকা বা চট্টগ্রামের রাস্তায় চলাচলের সময় আশপাশের সব ভবনকে নিরাপত্তাবলয়ের মধ্যে আনা সম্ভব হবে না বলেই মনে করছেন তিনি।

এ অবস্থায় নিরাপত্তার অতীত ইতিহাস স্মরণ করে বাংলাদেশ সফরে আসার আহ্বান জাআন জাতীয় দলের ওয়ানডে ফরমেটের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তিনি বিশ্বাস করেন, সব শঙ্কা ভুলে গিয়ে সিরিজ খেলতে আসবে ইংল্যান্ড। অবশেষে সব জল্পনা কাটিয়ে ইংল্যান্ড দল বাংলাদেশ সফরের সিদ্ধান্ত বহাল রাখায় দীর্ঘ ছয় মাস পর আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

You Might Also Like