বাংলাদেশে মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১৩৬ ডলার

বর্তমানে বাংলাদেশে মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১৩৬ ডলার। অর্থাৎ মাথাপিছু আয় ১০৪৪ ডলার থেকে বেড়ে ১১৮০ ডলারে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া সহিংস রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা থাকা সত্ত্বেও এ বছর জিডিপি’র প্রবৃদ্ধির হার ৬.১২ শতাংশ এবং এডিপি বাস্তবায়ন হার ৫৫ ভাগ। বুধবার দুপুরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (একনেক) নির্বাহী কমিটির সভায় এ তথ্য জানানো হয়। সভায় আরও জানানো হয়, বাংলাদেশের অর্থনীতি কয়েকটি অর্থনীতির মধ্যে একটির যে গত ৫ বছর ৬ ভাগ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে। একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বের বৈঠক হয়।

সভায় সবার জন্য কম খরচে ইন্টারনেট সেবা দিতে ৯৫৬ কোটি ৮৪ লাখ টাকার প্রকল্প অনুমোদন হয়। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিঃ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। প্রকল্পটির মোট ব্যয়ের মধ্যে সরকারি অর্থায়নে (জিওবি) ৩৪৪ কোটি ৬৯ লাখ এবং প্রকল্প সাহায্য ৬১২ কোটি ১৫ লাখ টাকা। প্রকল্পটি ফেব্রুয়ারি, ২০১৪ হতে জুন, ২০১৭ এর মধ্যে বাস্তবায়ন করা হবে। প্রকল্পের আওতায় ঢাকার দু’টি স্থানে কোর নেটওয়ার্ক স্থাপন করা হবে। এছাড়া, ৭টি বিভাগীয় শহরসহ জেলা ও উপজেলা শহরে মোট ৬শ ৭০টি বেইজ ট্রান্সসিভার স্টেশন (বিটিএস) নির্মাণসহ ৩শ কি. মি. অপটিক্যাল ফাইবার ক্যাবল নেটওয়ার্ক স্থাপন করা হবে।

একনেকে ৬ হাজার ৩৮৬ কোটি ৭ লাখ টাকার ৪টি প্রকল্প পাস হয়। পাসকৃত প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে ‘পল্লী বিদ্যুৎ বিতরণ সিস্টেমের ক্ষমতা বর্ধন’ প্রকল্প। এতে ব্যয় হবে ৫ হাজার ১৯৮ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। প্রকল্পটি জিওবি, সংস্থার নিজস্ব এবং বৈদেশিক অর্থায়নে বিদ্যুৎ বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎতায়ন বোর্ড বাস্তবায়ন করবে।

‘বিভাগীয় ও জেলা শিল্পকলা একাডেমী নির্মাণ’ শীর্ষক প্রকল্প। যার ব্যয় ধরা হয়েছে ১৯৩ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। সম্পূর্ণ জিওবি অর্থায়নে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতায় বাংলাদেশ শিল্প কলা একাডেমী প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। প্রকল্পটির বাস্তবায়নকাল ধরা হয়েছে অক্টোবর, ২০১৩ হতে জুন, ২০১৭ পর্যন্ত। এ প্রকল্পটি বাস্তবায়নের মাধ্যমে জাতীয় সংস্কৃতির উন্নয়ন সমৃদ্ধি ও প্রসারসহ কলাকুশলীদের স্ব স্ব ক্ষেত্রে দক্ষতা প্রদর্শন এবং প্রশিক্ষণের জন্য অবকাঠামোগত সুবিধা সৃষ্টি হবে। প্রকল্পের আওতায় ৩টি বিভাগীয় শিল্পকলা একাডেমী এবং ৫টি জেলা শিল্পকলা একাডেমী নির্মাণ করা হবে।

মোট প্রকল্প বরাদ্দের মধ্যে সরকারি অর্থায়ন ১ হাজার ৮৪৩ কোটি ৪৭ লাখ টাকা, প্রকল্প সাহায্য ৪ হাজার ৩১৭ কোটি ১৫ লাখ টাকা এবং সংস্থার নিজস্ব তহবিল ২২৫ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। ৪টি প্রকল্পই নতুন প্রকল্প। এর মধ্যে একটি প্রকল্প সম্পূর্ণ জিওবি অর্থায়নে বাস্তবায়িত হবে।

এছাড়া, সভায় ৩৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ঢাকার উত্তরাবাসীর জন্য “উত্তরা লেক উন্নয়ন” শীর্ষক অপর একটি প্রকল্প পাস হয়।

সভায় পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, ডাক, টেলিযোগাযোগও তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী, নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভাশেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ‘একনেক’ পাস হওয়া ৪টি প্রকল্প নিয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের সাথে প্রেসব্রিফিং-এ মিলিত হন।

You Might Also Like