বন্যা পরিস্থিতির জন্য মমতাই দুষলেন দিল্লী সরকারকে

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বন্যা পরস্থিতির জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে দোষারোপ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি ২৭ জুলাই বৃহস্পতিবার হাওড়ার আমতা-উদয়নারায়ন পুরের বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শনের পর বলেন, ‘যতদূর খবর পেয়েছি দামোদর ভ্যালি কর্পোরেশন (ডিভিসি)  প্রায় ২ লাখ কিউসেক পানি ছেড়েছে  তার ফলেই বন্যা হচ্ছে। বছরের পর বছর এ নিয়ে আমাদের ভুগতে হচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকার যদি দয়া করে ডিভিসি’র ড্যামগুলোর সংস্কার করে, পলি সরায় তাহলে আর এ পরিস্থিতি তৈরি হয় না।’ ৎ

এদিকে বাংলাদেশের বন্যা পরিস্থিতির জন্যও একই সমস্যা দায়ী বলে মনে করেন ভোক্তভোগিরা।

মমতা বলেন, ‘এ সমস্যা আজকের নয়। দীর্ঘদিন এ পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে বলে এসেছেন। চিঠি দিয়েছেন। নিজে দেখা করেও দাবি জানিয়েছেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকেও সেসময় জানিয়ে এসেছিলেন। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও বলেছেন। কিন্তু কিছুই সুরাহা হয়নি।’ তিনি বর্তমান বন্যা পরিস্থিতিকে ‘ম্যান মেড’ বলে অভিহিত করেছেন।

মমতা বলেন, ‘প্রকৃতির বিরুদ্ধে লড়াই করা যায় না। কিন্তু বছরের পর বছর এই পানি ছাড়ার বিষয় চলছে। সাধারণ মানুষের কথা না ভেবেই লাখ লাখ কিউসেক পানি ছেড়ে দেয়া হচ্ছে। এরফলে ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে, গবাদি পশু এমনকী মানুষেরও মৃত্যু হচ্ছে।’ কেন্দ্রীয় সরকার যদি দামোদর ভ্যালি কর্পোরেশন (ডিভিসি)-র ড্যাম সংস্কারের ব্যবস্থা না করে, তবে এ পরিস্থিতি বন্ধ হবে না বলেও মমতা আজ বলেন।

এদিকে, আজ (বৃহস্পতিবার)  সংসদে তৃণমূল এমপি সৌগত রায় পশ্চিমবঙ্গের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে সোচ্চার হয়েছেন। তিনি বলেন, বীরভূম, বাঁকুড়া, মুর্শিদাবাদ, হাওড়া, হুগলী এবং পশ্চিম দিনাজপুর জেলায় বন্যা পরিস্থিতিতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ ডিভিসি পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে না জানিয়ে প্রচুর পরিমাণে পানি ছাড়ার জন্য পরিস্থিতি আরো খারাপ হয়েছে।

তৃণমূল এমপি সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ও সংসদে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে দোষারোপ করে বলেন, বারবার বলা সত্ত্বেও কেন্দ্রীয় সরকার ডিভিসি থেকে পলি না তোলায় সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে।

You Might Also Like