বদরুলের বিচার ট্রাইব্যুনালে চান রিশার মা

সিলেটের কলেজছাত্রী খাদিজা বেগমের ওপর হামলাকারী বদরুল আলমের বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে করার দাবি জানিয়েছেন রিশার মা তানিয়া হোসেন।

শুক্রবার রাতে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে খাদিজাকে দেখতে এসে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ কথা বলেন।

সম্প্রতি রাজধানীর কাকরাইলে ছুরিকাঘাতে নিহত হয় উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের শিক্ষার্থী সুরাইয়া আক্তার রিশা। রিশার হত্যার সন্দেহভাজন যুবক ওবায়েদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সেখানে তিনি বলেছেন, প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তিনি রিশাকে ছুরিকাঘাত করেন।

হাসপাতাল থেকে বের হয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে জবাবে তানিয়া হোসেন বলেন, ‘আমি আমার সন্তানের মতো মনে করে খাদিজাকে দেখতে এসেছি। চল্লিশ দিন আগে রিশাকে হত্যা করা হয়েছিল। রিশাও পরীক্ষা দেওয়ার জন্য বের হয়েছিল। খাদিজার বেলায়ও তাই হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘যদি রিশা হত্যাকারীর বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে হতো, তাহলে খাদিজার আজ এই অবস্থা হতো না। তাই সরকারের কাছে আমার দাবি, দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে খাদিজাকে কুপিয়ে জখমকারী বদরুল আলমের সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি দেওয়া হোক।’

তানিয়া হোসেন বলেন, রিশা হত্যা ও খাদিজাকে কুপিয়ে জখম করার প্রেক্ষাপট একই। দুজনই উত্ত্যক্তকারীর শিকার। তিনি একজন মা হিসেবে দোয়া করেন যেন খাদিজা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরে।

পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে সোমবার বিকেলে খাদিজাকে কুপিয়ে আহত করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহসম্পাদক বদরুল আলম।

You Might Also Like