বঙ্গোপসাগরে জলদস্যুদের হামলায় ৮ জেলে গুলিবিদ্ধ

বরগুনার পাথরঘাটা থেকে ১৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে জলদস্যুদের হামলায় আট জেলে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এদের মধ্যে চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
রোববার রাত ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন, নুরুল ইসলাম, কবির হাওলাদার, মাসুদ মিয়া, লিটন মিয়া, খোকন মিয়া, সাইদুল, ফোরকান ও লিটু মিয়া। এদের মধ্যে নুরুল ইসলাম, কবির হাওলাদার, মাসুদ ও খোকনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহতদের বাড়ি বরগুনার পাথরঘাটা ও নিশানবাড়িয়া এলাকায়।
সকালে অন্য জেলেরা গুলিবিদ্ধ জেলেদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পাথরঘাটা নিয়ে আসছেন বলে জানা গেছে।
জেলা ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রাতে আলম মোল্লা নামে এক ব্যক্তির মালিকানাধীন এফবি মোহসিন আউলিয়া-এক, এফবি মোহসিন আউলিয়া-তিন ও এফবি মোহসিন আউলিয়া-চার ট্রলার নিয়ে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরছিলেন জেলেরা। এসময় গভীর সমুদ্র থেকে ট্রলারে করে আসা ২৫/৩০ জনের একদল জলদস্যু জেলেদের ট্রলারে ডাকাতির চেষ্টা করে। টের পেয়ে জেলেরা ট্রলারে করে পালিয়ে আসার সময় জলদস্যুরা তাদের গভীর সমুদ্রের দিকে ট্রলার চালাতে বাধ্য করে। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা ট্রলার চালানোর পর দস্যু বাহিনী জেলেদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এসময় ওই তিন ট্রলারে থাকা ৪৫ জেলের মধ্যে আটজন গুলিবিদ্ধ হন।
গুরুতর আহত চার জেলের শরীরে অন্তত ৩৫ থেকে ৪০টি গুলি লেগেছে বলেও জানান তিনি।
ট্রলার মালিক আলম মোল্লা জানান, সঙ্গীরা গুলিবিদ্ধ জেলেদের উদ্ধার করে পাথরঘাটায় নিয়ে আসছেন। আহত জেলেদের চিকিৎসা দিতে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।
কোস্টগার্ডের পাথরঘাটা পেটি অফিসার হাবিবুর রহমান বলেন, জেলা ট্রলার মালিক সমিতির মাধ্যমে খবরটি শুনেছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

You Might Also Like