বগুড়ায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে মুক্তিপণ দাবি : নারীসহ গ্রেফতার ৩

বগুড়ায় নারীর প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক ব্যক্তিকে আটকে রেখে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবির অভিযোগে এক নারীসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ ।

রোববার গভীর রাতে শহরের কলোনী এলাকা তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- শহরের চকফরিদ এলাকার ফিরোজ বাবুর স্ত্রী দুলালী বেগম (৩৫), একই এলাকার হান্নানের ছেলে শাকিল ওরফে পিচ্চি শাকিল (২০) এবং আমজাদ হোসেনের ছেলে শাহাদত ওরফে শাওন (২০)। একই সাথে পুলিশ উদ্ধার করেছে আটকে রাখা মিলন হোসেন (৫২) নামের এক ব্যক্তিকে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুল ইসলাম জানান, গাবতলীর কালাই হাটা গ্রামের মোজাহার আলীর ছেলে মিলন হোসেন রোববার দুপুরে পাসপোর্ট অফিসে আসেন। এ সময় তার পূর্ব পরিচিত বিলকিস বেগম নামের এক নারী মোবাইল ফোনে তাকে শহরের কলোনী এরাকায় ডেকে নেয়। বিলকিস বেগম ও মিলন হোসেন ওই এলাকার দুলালী বেগমের বাড়িতে গেলে তার সহযোগিতায় গ্রেফতারকৃত দুই যুবক মিলন হোসেনকে মারপিট করে আটকে রেখে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

এরপর বিকেলের দিকে মিলন হোসেন মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে তার আত্মীয়ের মাধ্যমে ৩০ হাজার টাকা তাদের বিকাশ একাউন্টে দেয়। এরপরও মুক্তি না দিয়ে আরও টাকার জন্য মারপিট শুরু করে। রাতে মিলন হোসেনের আত্মীয় আব্দুর রশিদ বিষয়টি গোয়েন্দা পুলিশকে জানায়। এরপর গভীর রাতে গোয়েন্দা পুলিশ কলোনী এলাকায় ফাঁদ পেতে শাকিল ও শাওনকে গ্রেফতার করে।

পরে তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী দুলালী বেগমের বাড়ি থেকে মিলন হোসেনকে উদ্ধার করা হয় এবং দুলালী বেগমকে পুলিশ গ্রেফতার করে।

এ ঘটনায় মিলন হোসেন গ্রেফতারকৃত তিনজনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রয়েছে বলেও ওসি জানান।

You Might Also Like