হোম » জেনে নিন ফেসবুকে ধোঁকা থেকে বাঁচার উপায়

জেনে নিন ফেসবুকে ধোঁকা থেকে বাঁচার উপায়

এখন সময় ডেস্ক- Sunday, April 30th, 2017

ভুয়া অ্যাকাউন্ট বন্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক কঠোর অবস্থান নিলেও বিভিন্ন কৌশলে ফেসবুকের শনাক্তকরণ প্রক্রিয়াকে বোকা বানিয়ে ভুয়া অ্যাকাউন্ট তৈরি হচ্ছে। নাম-পরিচয় নকল করে তৈরি ভুয়া অ্যাকাউন্ট থেকে নানা রকম প্রতারণামূলক কার্যক্রম পরিচালিত হয়। এসব ভুয়া অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতারণার শিকার হচ্ছেন অনেকেই। তা্ই  বিষয়ে সতর্ক থাকা প্রয়োজন। জেনে নিন ফেসবুকে এসব সমস্যা থেকে বাঁচার উপায়-

তরুণ-তরুণীদের আকৃষ্ট করার জন্য অনেক অ্যাকাউন্টে চটকদার ছবি ব্যবহার করা হয়। এ ছাড়াও রয়েছে অদ্ভুত নামের অ্যাকাউন্ট। কাউকে ফেসবুকে বন্ধু তালিকায় যুক্ত করার আগে তাঁর ফেসবুক নাম ও ছবি দেখে আসল অ্যাকাউন্ট কি না নিশ্চিত হয়ে নিন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, ফেসবুকে প্রতারণা ঠেকাতে যাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করছেন, তাঁর অ্যাকাউন্টটি ভুয়া কি না পরীক্ষা করা জরুরি। ভুয়া অ্যাকাউন্টে আসল নাম-পরিচয় পাবেন না। তাঁর পোস্টগুলো খেয়াল করলেই প্রোফাইলের ব্যক্তিটি সম্পর্কে ধারণা পাবেন।

অপরিচিত অনেক বিদেশি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে বন্ধু হওয়ার অনুরোধ পেতে পারেন। সাধারণ আলাপচারিতার পর আপনার সম্পর্কে নানা তথ্য সংগ্রহ করা হতে পারে। আপনাকে অর্থসহ নানা প্রলোভন দেখানো হতে পারে। এ ধরনের অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতারণার শিকার হতে পারেন।

ফেসবুক এখন যোগাযোগের বড় মাধ্যম হয়ে উঠেছে। ফেসবুকের প্রোফাইলে রাখা ছবি দেখে ভালো লাগা তৈরি হতে পারে। কিন্তু ফেসবুকের মাধ্যমে অপরিচিত কারও সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর আগে সতর্ক থাকা উচিত। কারণ, ফেসবুক হতে পারে প্রতারণার ফাঁদ।

কখনো কখনো ফেসবুকে আলাপচারিতার সময় পরিচিতজনের ছদ্মবেশে দুর্বৃত্তরা অর্থ চাইতে পারে। ফেসবুকে যোগাযোগের সময় কেউ অর্থ চাইলে নিশ্চিত হয়ে তবে অর্থ লেনদেন করবেন।

ফেসবুকে এখন অনেক প্রতারণামূলক লিংক ছড়ায়। লোভনীয় প্রস্তাব, একটি বার্তা আরও কয়েকজনকে ছড়ানোসহ নানা লিংক পরিচিতজনের কাছ থেকে আসতে পারে। এসব লিংকে ক্লিক না করে তা মুছে দিন।

ফেসবুক থেকে কেনাকাটা করলে কোনো পণ্য গ্রহণ করতে নিরাপদ জায়গা বেছে নেবেন। সঙ্গে কোনো বন্ধু রাখবেন। পণ্য বুঝে না পেয়ে অর্থ পরিশোধ করলে পরে ঠকতে হতে পারে। এ ক্ষেত্রে অবশ্যই যাচাই-বাছাই করে নিশ্চিত হয়ে অর্থ পরিশোধ করুন।

ফেসবুকে আপনার অবস্থান, পরিবারের তথ্যসহ স্পর্শকাতর তথ্য দেওয়া থেকে সতর্ক থাকুন। আপনার ওপর নজরদারি করা হতে পারে। তথ্যসূত্র: সিনেট, ম্যাশেবল।