ফেনীতে হামলায় আনসার নিহত, ম্যাজিস্ট্রেট আহত: লাশ বিএসএফের হেফাজতে

বাংলাদেশের ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার বদরপুর সীমান্তে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের সময় ‘মাদক ব্যবসায়ী’দের হামলায় নওশের আলী (৩৫) এক আনসার সদস্য নিহত হয়েছেন। এ সময় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা ও অপর এক আনসার সদস্য আহত হয়েছেন। আহতদের ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ১‌০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। হামলার সময় নওশের আলীকে সীমান্তের ভারতীয় অংশে নিয়ে যায় মাদক ব্যবসায়ীরা। সেখানে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের হেফাজতে তার লাশ রয়েছে। বুধবার রাতে বিজিবি-বিএসএফের পতাকা বৈঠকের পরও বিএসএফ লাশ ফেরত দেয়নি। ঘটনার পর বদরপুর সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আব্দুল আলীম জানান, বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ফেনী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানার নেতৃত্বে ফুলগাজী উপজেলার মুন্সীরহাট ইউনিয়নের বদরপুর সীমান্তের খানাবাড়ী এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীদের আটক করতে অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় নওশের আলী নামে এক আনসার সদস্য নিহত হন। এছাড়া, হামলায় ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা ও এক আনসার সদস্য আহত হন।

হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সপার (সার্কেল) ঐক্য সিং, ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আব্দুল আলিম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কিচিঞ্জার চাকমা, ফুলগাজী থানার ওসি এম মোর্শেদ ও বিজিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বদরপুর সীমান্ত এলাকার দায়িত্বপ্রাপ্ত ১০ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল গোলাম সরওয়ার জানান, এ বিষয়ে বিএসএফের সঙ্গে পতাকা বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে বিএসএফ জানিয়েছে, থানা পুলিশের কার্যক্রম শেষে আজকের মধ্যে লাশ হস্তান্তর করা হবে।

You Might Also Like