ফেনীতে ধর্ষণের দায়ে এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ফেনীতে মনসুরের রাসুল রুবেল (৩৫) নামে ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। বুধবার দুপুরে ফেনীর অতিরিক্ত দায়রা জজ ও নারী-শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক নিলুফার সুলতানা এ রায় দেন। এসময় তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছর কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

রায় ঘোষণার পর আসামি মনসুরের রাসুল রুবেলকে ফেনী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ফেনী কোর্টের এসিসট্যান্ট পাবলিক প্রসিকিউটার (এপিপি) ফরিদ আহম্মদ হাজারী জানান, ২০০৮ সালের ১২ জানুয়ারি রাতে ফেনীর দাগনভূঁইয়া পৌরসভার বেতুয়া গ্রামের ডাক্তার বাড়ির বাসিন্দা রফিকুল ইসলামের ছেলে মনসুরের রাসুল রুবেল একই বাড়ির এক মেয়েকে ধর্ষণ করে। ঘটনার দু’দিন পর ১৪ জানুয়ারি ওই মেয়ের মা মোসাম্মদ সালেহা আক্তার বাদি হয়ে মনসুরের রাসুল রুবেলসহ দুই জনের বিরুদ্ধে দাগনভূঁইয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তদন্ত শেষে মনসুরের রাসুল রুবেলের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ পত্র জমা দেয়। মামলাটির দীর্ঘ শুনানীকালে আদালতে ১০ জন স্বাক্ষী তাদের স্বাক্ষ্য প্রদান করেন।

বুধবার ফেনীর অতিরিক্ত দায়রা জজ ও নারী-শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক নিলুফার সুলতানা আসামি মনসুরের রাসুল রুবেলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো এক বছর কারাদণ্ড প্রদান করেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এসিসট্যান্ট পাবলিক প্রসিকিউটার (এপিপি) ফরিদ আহম্মদ হাজারী ও আসামি পক্ষে ছিলেন এডভোকেট করিমুল হক দুলাল।

You Might Also Like