ফিলিপাইনকে এবারে অস্ত্র এবং অর্থ যোগাবে চীন

চীন ফিলিপাইনকে সহজ শর্তে অর্থ এবং অস্ত্র সরবরাহ করার প্রস্তাব দিয়েছে। এতে ফিলিপাইনকে ১ কোটি ৪০ লাখ ডলারের অস্ত্র সরবরাহ করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া, দেশটিকে সহজ শর্তে ৫০ কোটি ডলারের ঋণের প্রস্তাবও দিয়েছে। দেশ দুইটির মধ্যে সম্পর্ক ক্রমেই ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠার পরিপ্রেক্ষিতে এ সব প্রস্তাব দেয়া হয়।

ফিলিপাইনে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এ প্রস্তাব দিয়েছেন। ঋণের অর্থ ফিলিপাইনকে ২৫ বছর মেয়াদে শোধ করতে হবে বলে খবরে উল্লেখ করা হয়। চীনা অর্থ এবং অস্ত্র ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তেকে অপরাধ এবং সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়তে সহায়তা করবে।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী ডেলফিন লরেনজানা বলেছেন, চীন অস্ত্রের যে তালিকা দিয়েছে তাতে দ্রুতগামী নৌকা, ক্ষুদ্র অস্ত্র এবং অন্ধকারে দেখার উপযোগী নাইট ভিশন গগলস রয়েছে। চলতি বছরের শেষ দিকে এ সংক্রান্ত চুক্তি হবে এবং আগামী বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকের মধ্যে এ সব অস্ত্র ফিলিপাইনে পৌঁছাবে বলেও জানান তিনি।

দুতের্তে ক্ষমতায় আসার আগে চীন এবং ফিলিপাইনের সম্পর্কে তীব্র টানাপড়েন চলেছে। দক্ষিণ চীন সাগরের বিরোধপূর্ণ দ্বীপপুঞ্জের ওপর সার্বভৌমত্ব নিয়ে এ টানাপড়েন চলেছে। কিন্তু দুতের্তের মাদক বিরোধী অভিযানকে মানবাধিকার লঙ্ঘন বলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা অভিযোগ করার পরই চীনের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নের পথ বেছে নেয় ম্যানিলা। ফিলিপাইনের নেতা প্রকাশ্যেই বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্টের তীব্র সমালোচনা শুরু করেন।

You Might Also Like