প্রিজনভ্যানচাপায় মা-ছেলেসহ নিহত ৩

রংপুরে কেন্দ্রীয় কারাগারের পুলিশের প্রিজনভ্যান রিকশাভ্যানকে চাপা দিলে মা ছেলেসহ ৩ যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা পুলিশের প্রিজনভ্যানে আগুন লাগিয়ে দেন এবং সড়ক অবরোধ করে রাখেন।

ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সন্ধ্যা সোয়া ৫টার দিকে নগরীর পাগলাপীর এলাকায়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শলেয়াশর বাজার থেকে একটি রিকশাভ্যান ৫ যাত্রী নিয়ে পাগলাপির এলাকায় আসছিল। রিকশাভ্যানটি ঠাকুরটারি এলাকায় এলে সৈয়দপুর থেকে রংপুরগামী রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রিজনভ্যানটি রিকশাভ্যানটিকে চাপা দেয়। এতে তারাগঞ্জের খারুয়াবাধা গ্রামের সফুর আলী ও হাবিব মিয়ার ৫ বছরের ছেলে আনার হোসেন ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

গুরুতর আহত অবস্থায় আনারের মা জেসমিন বেগমকে রমেক হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় এলাকাবাসী উত্তেজিত হয়ে পুলিশের ওই ভ্যানটিতে আগুন লাগিয়ে দেয়। পরে ফায়ার সার্ভিস গিয়ে আগুন নিভিয়ে ফেলে।

তবে সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এলাকাবাসী দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়ক অবরোধ করে রেখেছেন।

কোতোয়ালি থানার ওসি আব্দুল কাদের জিলানী দুর্ঘটনায় নিহত ও প্রিজনভ্যানে আগুন দেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে এ বিষয়ে জানতে কেন্দ্রীয় কারাগারে যোগাযোগ করতে বলেন।

কেন্দ্রীয় কারাগারে যোগাযোগ করা হলে কারাগার থেকে আব্দুর রাজ্জাক পরিচয় দিয়ে একজন জানান, প্রিজনভ্যানটি রংপুরের জেল সুপার, জেলারসহ অন্যান্য কর্মকর্তাদের সৈয়দপুর বিমানবন্দরে পৌঁছে দেওয়ার জন্য গিয়েছিল। ফিরতি পথে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। প্রিজনভ্যানে কোনো আসামি ছিল না।

You Might Also Like