প্রবল বর্ষণে চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরে অচলাবস্থা

দমকা থেকে ঝড়ো হাওয়ার সাথে প্রবল বর্ষণের কারণে চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরে আমদানি-রফতানিমুখী পণ্যসামগ্রী ওঠানামা, ডেলিভারি পরিবহনসহ স্বাভাবিক বন্দর কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে। মৌসুমি বায়ু জোরদার থাকায় সমুদ্র এখন উত্তাল রয়েছে। চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙ্গরে অবস্থানরত মাদার ভেসেল থেকে আমদানি পণ্য লাইটারিং খালাস কাজ বন্ধ হয়ে গেছে। জেটি-বার্থে অবস্থানরত জাহাজেও মালামাল ওঠানামা বন্ধ রয়েছে। বেসরকারি আইসিডিগুলোতে কার্গো হ্যান্ডলিং ব্যাহত হচ্ছে। তাছাড়া বন্দর-নির্ভর শিপিং, কাস্টমস, সিএন্ডএফ প্রতিষ্ঠানে কাজেকর্মে ভাটা পড়েছে।

শনিবার রাতভর থেমে থেমে মাঝারি ও ভারী বর্ষণের পর রবিবার সকাল থেকেই অতিবৃষ্টি, একই সাথে সামুদ্রিক জোয়ারে চট্টগ্রাম মহানগরী ও আশপাশের ব্যাপক এলাকায় স্বাভাবিক জীবনযাত্রা স্থবির হয়ে পড়েছে। অনেক জায়গায় হঠাৎ করে পুনরায় সৃষ্টি হয়েছে পানিবদ্ধতা।

বহির্নোঙ্গর থেকে কোন জাহাজ জেটিতে ভিড়তে পারেনি। একশ’রও বেশি লাইটারেজ জাহাজ, কোস্টার, ট্যাংকার অলস বসে আছে। এদিকে দমকাসহ ভারী বর্ষণের কারণে সকালে অফিস-আদালত, কর্মস্থলগামী শিক্ষার্থীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে।

অতিবর্ষণ ও প্রবল জোয়ারের কারণে নগরীর চকবাজার, কাপাসগোলা, বাদুরতলা, বহদ্দারহাট, বাকলিয়া, মুরাদপুর, ষোলশহর, শুলকবহর, আগ্রাবাদ, সাগরিকা, হালিশহরসহ বিভিন্ন এলাকা বিশেষত উপকূল সংলগ্ন এলাকাগুলো ক্রমশ হাঁটু সমান পানিতে তলিয়ে গেছে। অতিবর্ষণে নগরীর চাক্তাই খাতুনগঞ্জ ব্যবসায়িক এলাকা, আগ্রাবাদ বাণিজ্যিক এলাকা স্থবির হয়ে পড়েছে।

You Might Also Like