Uncategorized

পৃথিবীর সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং চাকরি পেয়েছি: ইংলিশ কোচ

ইংল্যান্ড জাতীয় ফুটবল দলের নতুন কোচ হিসেবে ‘বিগ স্যাম’ খ্যাত ৬১ বছর বয়সী স্যাম অ্যালারডাইসের নাম ঘোষণা করা হয়। ইংলিশ সাবেক এই তারকা ডিফেন্ডার রয় হজসনের স্থলাভিষিক্ত হন।

সম্প্রতি শেষ হওয়া ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে রয় হজসনের শিষ্যরা শেষ ষোলো থেকে বিদায় নেয়। আসরে চমক দেখানো আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে ইউরো থেকে ছিটকে পড়ে ওয়েইন রুনি-রাহিম স্টারলিং-জেমি ভার্ডিরা। এরপরই কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন থ্রি-লায়ন্সদের কোচ রয় হজসন।

প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিক প্রেস কনফারেন্সে যোগ দিয়ে ইংলিশদের কোচের দায়িত্ব পৃথিবীর সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং চাকরি জানিয়ে স্যাম অ্যালারডাইস জানান, ‘এটা শুধু পৃথিবীর কঠিনতম চাকরি নয়, এটা আমার ক্যারিয়ারের জন্যও বেশ কঠিন ও চ্যালেঞ্জিং চাকরি। তবে, আমি আমার কাজটা সঠিকভাবে করতে পারলে নিঃসন্দেহে আমার পুরো ক্যারিয়ারে সেটা ভালো অবদান রাখবে। আমি আশা করছি বর্তমান শিষ্যদের নিয়ে সফল হবো।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমার কোচিং ক্যারিয়ারে অনেক বিশ্বসেরা ফুটবলারদের নিয়ে কাজ করেছি। সফলতা আমাকে ধরা দিয়েছে। বহু মেধাবী ফুটবলার নিয়ে কাজ করেছি। আমি জানি কাকে দিয়ে কি হতে পারে। এই দলটিকে আমার মতো করে সাজাতে চাই। নিজের অভিজ্ঞতা দিয়ে শিষ্যদের হোম এবং অ্যাওয়ে ম্যাচে জেতাতে চাই।’

কাকে অধিনায়কত্ব দেবেন সেটা এখনো ঠিক না করলেও, দলের ঐক্য বাড়াতে কাজ করবেন বলে জানান এই বর্ষীয়ান কোচ। তিনি সংবাদমাধ্যমে জানান, আমার দায়িত্বটা উপভোগ করতে চাই। আগে দল কেন পারেনি সেটা খুঁজে বের করাটাই আমার দায়িত্ব। অধিনায়ক কে হবে বা কে থাকবে সেটা এখনি বলতে চাই না। আগে দলের ঐক্য বাড়াতে চাই। কারণ, একটি দল হিসেবে খেলাটাই আমার কাছে প্রাধান্য পাবে।

আগামী দুই বছরের জন্য থ্রি লায়ন্সদের কোচ হিসেবে যোগ দিয়েছেন ক্লাবের হয়ে ৫৭৮ ম্যাচ খেলা স্যাম অ্যালারডাইস। এর আগে ওয়েস্টহ্যাম, নিউক্যাসল ইউনাইটেডের মতো দলকে কোচিং করিয়েছেন তিনি। ২০১৫ সালের অক্টোবরে ওয়েস্টহ্যাম থেকে সান্ডারল্যান্ডে যোগ দেন তিনি। গত মৌসুমে সান্ডারল্যান্ডকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের অবনমন থেকে বাঁচান অভিজ্ঞ এই কোচ।

ইংল্যান্ডের কোচ হিসেবে তার মিশন শুরু হচ্ছে আগামী ০১ সেপ্টেম্বর এক প্রীতি ম্যাচের মধ্যদিয়ে। তবে, অ্যালারডাইসের অধীনে ইংল্যান্ড প্রথম প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলবে ০৪ সেপ্টেম্বর। ২০১৮ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের সেই ম্যাচে ইংল্যান্ডের প্রতিপক্ষ স্লোভাকিয়া।