পৃথক হলো সিটি করপোরেশনের প্রতীক

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর এবার সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রতীকও আলাদা করলো নির্বাচন কমিশন (ইসি)।
এক প্রজ্ঞাপন জারি করে স্থানীয় সরকারের এ নির্বাচনের জন্য প্রতীক আলাদা করা হয়েছে। এতে মোট ৩৪টি প্রতীক সংরক্ষণ করা হয়েছে। এরমধ্যে, মেয়র পদের জন্য ১২টি, সংরক্ষিত নারী সদস্যের জন্য ১০টি এবং সাধারণ সদস্য বা কাউন্সিলরের জন্য ১২টি প্রতীক রয়েছে।
ইসির উপ-সচিব আব্দুল অদুদ জানিয়েছেন, সব নির্বাচনের জন্য আলাদা আলাদা প্রতীক সংরক্ষণ করা হবে। প্রতীক দেখেই যেন কোন নির্বাচনের আয়োজন চলছে, তা বোঝানো যায়। তাই এমন আলাদা করা হয়েছে। আবার অনেক সময় এক নির্বাচনের প্রতীক অন্য নির্বাচনে ব্যবহার হলে বিভ্রান্তিরও সৃষ্টি হয়। বর্তমানে উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রতীকও আলাদা করার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান তিনি।
ইসির আইন শাখার সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা বলেছেন, ইউনিয়ন পরিষদ ও পৌরসভার প্রতীকগুলো চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য রোববার আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। উপজেলার প্রতীকগুলো শিগগিরই পাঠানো হবে। আইন মন্ত্রণালয় থেকে অনাপত্তি আসলেই এগুলোও চূড়ান্ত করা হবে।
এরআগে, গত ডিসেম্বরে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য ৬৫টি প্রতীক সংরক্ষণ করে ইসি।
সিটি করপোরেশন মেয়র পদের জন্য সংরক্ষিত ১২টি প্রতীক হলো-কমলালেবু, ক্রিকেট ব্যাট, চরকা, টেবিল ঘড়ি, টেলিস্কোপ, ডিস এন্টেনা, দিয়াশলাই, ফ্লাক্স, বাস, ময়ূর, হাতি ও ইলিশ মাছ।
মহিলা কাউন্সিলর পদের জন্য সংরক্ষিত ১০টি প্রতীক হলো-কেটলি, গ্লাস, পান পাতা, পিঞ্জর, টিস্যু বক্স, বৈয়ম, মুলা, মোড়া, শিল পাটা ও স্টিল আলমারি।
সাধারণ কাউন্সিলর পদের জন্য সংরক্ষিত ১২টি প্রতীক হলো-কাঁটা চামচ, মিষ্টি কুমড়া, এয়ারকন্ডিশনার, করাত, ঘুড়ি, টিফিন ক্যারিয়ার, ট্রাক্টর, ঠেলাগাড়ি, ঝুড়ি, ব্যাডমিন্টন রেকেট, রেডিও এবং লাটিম।

You Might Also Like