পীত সাগরে চীনের ‘নজিরবিহীন’ সামরিক মহড়া

পীত সাগরে নজিরবিহীন সামরিক মহড়া শুরু করেছে চীন। কোরিয় উপদ্বীপ ও চীনের মাঝামাঝি স্থানে এ মহড়া চালাচ্ছে বেইজিং। নজিরবিহীন সামরিক মহড়ায় চীনা বিমান ও নৌবাহিনী অংশ নিচ্ছে।

চীনা পিপল’স লিবারেশন আর্মি পরিচালিত একটি দৈনিক শুক্রবার সামরিক মহড়া শুরুর খবর দিয়েছে তবে মহড়া ঠিক কোথায় চলছে এবং কতদিন ধরে চলবে তা স্পষ্ট করে বলে নি।

পত্রিকাটির প্রতিবেদেনে বলা হয়েছে- প্রায় ১০০ যুদ্ধজাহাজ, নৌবাহিনীর বহুসংখ্যক বিমান এবং ইলেক্ট্রনিক কাউন্টার বাহিনী লাল ও নীল দলে বিভক্ত হয়ে সামরিক মহড়ায় অংশ নিচ্ছে। স্বল্প সময়ের নোটিশে ব্যাপকভিত্তিক যুদ্ধের লক্ষ্যে এ মহড়া চালানো হচ্ছে। মহড়ায় রয়েছে দীর্ঘ পাল্লার গোলা নিক্ষেপ, ভূমিতে শত্রুর লক্ষ্যবস্তু এবং ব্যাপকভিত্তিক বিমান প্রতিরক্ষা ও ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী অভিযান।

প্রথম দিনের মহড়ায় ব্যবহৃত গোলাগুলির পরিমাণকে ‘নজিরবিহীন’ আখ্যা দিয়ে পত্রিকাটি বলেছে, যুদ্ধ-মহড়ার সামগ্রিক প্রক্রিয়ায় সত্যিকারের অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। এতে আরো বলা হয়েছে- আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে ক্ষেপণাস্ত্র, টর্পেডো, কামান ও মর্টারের গোলা এবং জ্যামিং বোমা অনেক বেশি ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া, উত্তর কোরিয়ার কাছে অবস্থিত শেনইয়াং সামরিক কমান্ড এরিয়ার ইলেক্ট্রনিক যুদ্ধ ইউনিট এবং জিনান সামরিক এরিয়া কমান্ড মহড়ায় অংশ নিয়েছে। এতে মহড়া অনেক বেশি তথ্য-প্রযুক্তি ভিত্তিক সামুদ্রিক যদ্ধে পরিণত হয় বলে পত্রিকাটি দাবি করেছে।

You Might Also Like