পাখির ‘ধাক্কায়’ বিমানের জরুরি অবতরণ

বিমান সংস্থা এয়ার এশিয়া এক্সের একটি বিমান পাখির সঙ্গে ধাক্কা খাওয়ায় সেটি ঘুরে গিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে জরুরি অবতরণ করে।

৩৬৯ আরোহী নিয়ে স্থানীয় সময় সোমবার গোল্ড কোস্ট থেকে উড্ডয়নের পর বিমানটিতে সমস্যা দেখা দেয়। যাত্রীরা ঝুাঁকুনি খায়। ইঞ্জিন থেকে আগুনের স্ফূলিঙ্গ বের হতে দেখেন যাত্রীরা। এ অবস্থায় এক ঘণ্টা চলার পর বিমানটি ব্রিসবেনে অবতরণ করে।

এয়ার এশিয়া এক্স জানিয়েছে, রানওয়েতে দুটি পাখির দেহাবশেষ পাওয়া গেছে। এদিকে, এরিক লিম নামে এক যাত্রী বলেছেন, উড্ডয়নের কিছু সময় পর বিমানটিতে সমস্যা দেখা দেয়। তিনি তার ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘বুম বুম আওয়াজ হচ্ছিল এবং কিছু যাত্রী চিৎকার করে কাঁদছিলেন এবং তারা আহাজারি করছিলেন, হায় ঈশ্বর! হায় ঈশ্বর!’

এয়ার এশিয়া এক্সের প্রধান নির্বাহী বেনিয়ামিন ইসমাইল জানিয়েছেন, ঘটনার সময় যাত্রীদের আশ্বস্ত করতে পাইলট ও ক্রুরা দ্রুত পদক্ষেপ নেন। দুর্ঘটনার শিকার ডি৭ ২০৭ নম্বর ফ্লাইটের যাত্রীদের অন্য একটি ফ্লাইটে যত দ্রুত সম্ভব কুয়ালালামপুরে পৌঁছে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

গত সপ্তাহে এয়ার এশিয়া এক্সের একটি বিমানে ইঞ্জিনজনিত ত্রুটির কারণে সেটি ওয়াশিং মেশিনের মতো ঝুাঁকুনি খায়। পার্থ বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করে সেটি। গত মাসে ইঞ্জিনে ত্রুটির কারণে চায়না ইস্টার্ন এয়ারলাইনসের একটি বিমান সিডনিতে জরুরি অবতরণ করে। রাডার নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থায় গোলযোগের কারণে ২০১৪ সালে এয়ার এশিয়ার একটি বিমান জাভা সাগরে বিধ্বস্ত হয় এবং এতে ১৬২ আরোহী নিহত হন।

You Might Also Like