পাকিস্তান সন্ত্রাসের পোষক : পারভেজ মোশাররফ

পাকিস্তানের প্রাক্তন স্বৈরশাসক পারভেজ মোশাররফ স্বীকার করেছেন, তার দেশ সন্ত্রাসীদের লালন করে এবং তাদের প্রশিক্ষণ দেয়। ১৯৯০-এর দশকে লস্কর-ই-তাইয়েবার মতো সন্ত্রাসী সংগঠনকে মদদ দিয়ে তৈরি করে পাকিস্তান। যে কারণে লস্কর নেতা হাফিজ সাইদ ও জাকিউর রহমান লাকভির মতো সন্ত্রাসীরা মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার সুযোগ পায়।

পাকিস্তানের নিউজ চ্যানেল দুনিয়া নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পারভেজ মোশাররফ বলেন, ‘১৯৯০-এর দশকে কাশ্মীরে স্বাধীনতা আন্দোলন শুরু হয়…ওই সময় লস্কর-ই তাইয়েবার মতো ১১ থেকে ১২টি সংগঠন সৃষ্টি হয়। আমরা তাদের সমর্থন করেছি এবং প্রশিক্ষণ দিয়েছি, কেননা তারা জীবন বাজি রেখে কাশ্মীরে যুদ্ধ করেছে।’

২০০৮ সালে ভারতের মুম্বাইয়ে সন্ত্রাসী হামলার মূল হোতা হাফিজ সাইদ ও লাকভির বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে পারভেজ মোশাররফ এসব কথা বলেন। ভারতের মোস্ট ওয়ানটেড সন্ত্রাসীর তালিকায় হাফিজ সাইদের নাম রয়েছে। কিন্তু পাকিস্তানে স্বাধীনভাবে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি। ২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর মুম্বাইয়ে হামলার অভিযোগে লাকভি এবং আরো ছয়জনের বিরুদ্ধে বিচার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। ওই হামলায় ১৬৬ জন নিহত হয়।

এদিকে চলতি বছরের শুরুর দিকে পাকিস্তানের একটি আদালত লাকভিকে জামিন দেন। এ নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে ভারত। লাকভির মতো শীর্ষ সন্ত্রাসীকে জামিন দেওয়ায় পাকিস্তানের সঙ্গে কূটনৈতিক উত্তেজনা বেড়ে যায় ভারতের।

পারভেজ মোশাররফ আরো বলেন, কাশ্মীরের স্বাধীনতা আন্দোলনে নেমে হিরো বনে যান হাফিজ ও লাকভি। কিন্তু ধর্মভিত্তিক আন্দোলন থেকে সরে তারা এখন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীতে পরিণত হয়েছে। তারা এখন নিজেদের লোককেই মারছে।

তথ্যসূত্র : এনডিটিভি ও টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।

You Might Also Like