পাকিস্তানে শিশু হত্যাযজ্ঞে খালেদার নিন্দা

পাকিস্তানের পেশোয়ারে সেনাবাহিনী পরিচালিত একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তালেবানদের বর্বর ও নিষ্ঠুর হামলায় শতাধিক শিশু শিক্ষার্থীসহ ১৩০ জনের মৃত্যুর ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

মঙ্গলবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে প্রাক্তন এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মর্মান্তিক মৃত্যুতে নিন্দা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই।’

পাকিস্তানের পেশোয়ারে সেনাবাহিনী পরিচালিত একটি স্কুলে মঙ্গলবার বর্বর হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি) জঙ্গিরা, যাতে নিহত হয়েছে শতাধিক শিক্ষার্থীসহ অন্তত ১৩০ জন। পাকিস্তানে গত কয়েক বছরের মধ্যে ভয়ঙ্করতম এ হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বিভিন্ন দেশ। দেশটির সরকার তিন দিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘তালেবানদের এ ধরনের হিংস্রতা বিশ্বে শান্তিময় পরিবেশকে অশান্ত করার উদ্দেশ্যেই করা হয়েছে। ধর্মের নামে অসহায় ও নিরীহ শিশু-কিশোরদের ওপর এ ধরনের হামলা এবং পৈশাচিক হত্যাকা- সমগ্র বিশ্বের বিবেকবান মানুষকে ব্যথিত করেছে।’

তালেবানদের পৈশাচিক হামলায় নিহত শিক্ষার্থীদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং তাদের নিকটজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান বিএনপি চেয়ারপারসন।

অপর এক বিবৃতিতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

তিনি তালেবানদের এই হামলাকে সাম্প্রতিককালের সবচেয়ে নিষ্ঠুর, অমানবিক ও পৈশাচিক বলে আখ্যায়িত করে বলেন, ‘তালেবানরা বরাবরই একটি নিপীড়ক শক্তি। ধর্মের দোহাই দিয়ে তালেবানরা পাকিস্তানের পেশোয়ারে যে নির্মম হত্যাকাণ্ড ঘটালো তা সারা বিশ্বের মানুষের নিকট চিরকাল ধিকৃত হয়ে থাকবে।’

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব তালেবানদের হামলায় নিহতদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

You Might Also Like