হোম » পাকিস্তানে আঘাতের হুঁশিয়ারি ইরানের

পাকিস্তানে আঘাতের হুঁশিয়ারি ইরানের

ঢাকা অফিস- Monday, May 8th, 2017

আন্তঃসীমান্ত অঞ্চলে যারা হামলা চালাচ্ছে, সেইসব জঙ্গিদের পাকিস্তান শায়েস্তা করতে না পারলে ইরান তাদের ওপর আঘাত করবে।

ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল মোহাম্মদ বাকেরি পাকিস্তানকে হুঁশিয়ার করে সোমবার তেহরানে এ কথা বলেছেন।

সীমান্ত জঙ্গিদের হামলায় গত মাসে ১০ ইরানি সীমান্তরক্ষী নিহত হয়েছেন। ইরানের দাবি, জঙ্গিগোষ্ঠী জয়শ আল-আদল পাকিস্তানের ভেতর থেকে দূরপাল্লার বন্দুক দিয়ে সীমান্তরক্ষীদের ওপর হামলা চালায়।

ইরান ও পাকিস্তান সীমান্তে দীর্ঘদিন চোরচালানগোষ্ঠী ও জঙ্গিগোষ্ঠীদের কারণে অস্থির হয়ে আছে। সম্প্রতি জঙ্গি কার্যক্রম বেড়ে গেছে।

মেজর জেনারেল বাকেরি বলেন, ‘এ অবস্থা চলতে থাকবে, তা আমরা বরদাস্ত করতে পারি না।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমরা আশা করব, সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ, সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার ও তাদের ঘাঁটিগুলো ধ্বংস করবে।’

এ বিষয়ে পাকিস্তানকে হুঁশিয়ার করে তিনি বলেন, ‘যদি সন্ত্রাসী হামলা অব্যাহত থাকে, তাহলে তারা যে-ই হয়ে থাকুক, আমরা তাদের ‘নিরাপদ’ আস্তান ও ঘাঁটিতে আঘাত করব।’

গত সপ্তাহে পাকিস্তান সফর করেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। সে সময় তিনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে সীমান্ত নিরাপত্তা বাড়ানোর আহ্বান জানান। তখন পাকিস্তান আশ্বস্ত করে, তারা সীমান্তে সৈন্য সংখ্যা বাড়াবে।

২০১৪ সালে জঙ্গিগোষ্ঠী জয়শ আল-আদলের হাতে অপহৃত পাঁচ ইরানিকে উদ্ধারে পাকিস্তানে অভিযান চালানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছিল ইরান। তখন পাকিস্তান তাদের এ কাজ করতে মানা করে এবং একে আন্তর্জাতিক আইনের পরিপন্থি হিসেবে ইরানকে সাবধান করে।

পরে স্থানীয় এক ধর্মীয় নেতার হস্তক্ষেপে সমস্যার সমাধান হয়। জঙ্গিরা একজনকে হত্যা করলেও বাকি চারজনকে মুক্ত করে দেয়।

জয়শ আল-আদল ইরানের সীমান্তরক্ষীদের ওপর বেশ কয়েকবার হামলা চালিয়েছে। ইরানে সংখ্যালঘু মুসলিমদের (সুন্নি) বিরুদ্ধে বৈষম্যের অভিযোগে তারা এসব হামলা চালায়।

২০১৫ সালের এপ্রিলে আট সীমান্তরক্ষী এবং ২০১৩ সালের অক্টোবরে ১৪ সীমান্তরক্ষী হত্যার দায় স্বীকার করে জয়শ আল-আদল।