পরমাণু যুদ্ধ : প্রস্তুত হচ্ছে রুশ ‘কিয়ামত বিমান’

সম্ভাব্য পরমাণু যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে রাশিয়া। এ জন্য ‘ডুমসডে প্লেন বা কেয়ামতের বিমান’ প্রস্তুত করার নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। প্রচণ্ড যুদ্ধের মধ্যে যদি ভূমিতে সামরিক বাহিনীর কমান্ড সেন্টার অকেজো হয়ে যায় তাহলে ইলিউশিন টু-৮০ মডেলের এ বিমানের মাধ্যমে আকাশ থেকে সেনাবাহিনীকে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

সামরিক বিশেষজ্ঞদের উদ্ধৃতি দিয়ে রাশিয়ার আরটি এবং ব্রিটেনের ডেইলি এক্সপ্রেসহ বিশ্বের বহু গণমাধ্যম খবর দিয়েছে, চলতি বছরের শেষ নাগাদ এ বিমানের প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হবে কিন্তু প্রেসিডেন্ট পুতিন ইলিউশিন এ বিমানগুলোকে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে সম্পূর্ণ প্রস্তুত করার নির্দেশ দিয়েছেন। তুরস্কের সঙ্গে রাশিয়ার যখন প্রচণ্ড সামরিক উত্তেজনা চলছে তখন এ খবর বের হলো।

এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে এরইমধ্যে বিমানগুলোর কয়েকদফা পরীক্ষামূলক উড্ডয়ন সম্পন্ন হয়েছে। এই ধরনের বিমানকে সহজে পরাজিত করা যায় না। এর আগে শুধু আমেরিকার কাছে কিয়ামত বিমান ছিল; এখন রাশিয়া এ বিমানের অধিকারী হলো।

যুদ্ধের সময় স্থল থেকে হামলার নির্দেশ দেয়া হলে তা শনাক্ত এবং ধ্বংস করা সম্ভব কিন্তু এই বিমানে বসে আকাশ থেকে নির্দেশ দিলে তা শনাক্ত করা খুবই কঠিন বলে জানিয়েছেন ইলিউশিন টু-৮০ বিমান গবেষণা ও প্রস্তুত প্রকল্পের মহাপরিচালক আলেকসান্দ্র কমিয়াকভ। স্থলভাগের যুদ্ধে যখন সামরিক বাহিনী মারাত্মক প্রতিকূল অবস্থার মধ্যে পড়বে এবং কমান্ড সেন্টারগুলো অকেজো হয়ে যাবে তখন সিনিয়র জেনারেল, অফিসার ও প্রযুক্তিবিদরা এ বিমানে উঠে যুদ্ধ পরিচালনা করবেন। সেখান থেকে সেনা, বিমান, নৌবাহিনী এবং ক্ষেপণাস্ত্র ইউনিটকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হবে।

You Might Also Like