হোম » ‘নেইমার কখনোই রিয়ালে যাবে না’

‘নেইমার কখনোই রিয়ালে যাবে না’

ঢাকা অফিস- Monday, December 4th, 2017

সম্প্রতি নেইমারের পিএসজি ছেড়ে রিয়ালে মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার গঞ্জন নিয়ে ফুটবল বিশ্ব সরগরম। তবে ব্রাজিল অধিনায়কের প্রাক্তন বার্সেলোনা সতীর্থ লুইস সুয়ারেজের বিশ্বাস, নেইমার কখনোই রিয়ালে যাবেন না।

গত আগস্টে রেকর্ড ২২২ মিলিয়ন ইউরোতে বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দেন নেইমার। ফরাসি ক্লাবটির সঙ্গে ২০২২ সাল পর্যন্ত চুক্তি আছে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের।

কিন্তু ন্যু ক্যাম্প ছেড়ে যাওয়ার পর থেকে নেইমারের আবার স্পেনে ফেরার গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। তিনি বার্সেলোনার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে।

সংবাদমাধ্যমের খবর, পিএসজিতে নেইমার ভালো নেই। তিনি ক্লাব ছাড়তে চাইছেন। আর এ কারণেই তার রিয়ালে যোগ দেওয়ার গুঞ্জন চলছে।

তবে সুয়ারেজ মনে করেন, এমনটা কখনোই ঘটবে না। স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সুয়ারেজ বলেছেন, ‘একদমই না। সত্যি বলছি, আমি তা (নেইমারের রিয়ালে যাওয়া) দেখছি না।’
বার্সেলোনার প্রতি শ্রদ্ধার কারণেই নেইমার রিয়ালে যাবেন না বলে মনে করেন উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার, ‘বার্সেলোনা ও তার সতীর্থদের প্রতি নেইমারের কতটা শ্রদ্ধা আছে তা আমি জানি। আমি দেখছি না সে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে খেলতে যাচ্ছে।’

নেইমারের বার্সা ছাড়ার সিদ্ধান্তে প্রাক্তন সতীর্থের পাশেই দাঁড়াচ্ছেন সুয়ারেজ, ‘নেইমার একজন পরিণত ব্যক্তি এবং সে তার সিদ্ধান্ত নিয়ে সম্পূর্ণ সচেতন ছিল। অবশ্যই সে অনেক কষ্ট নিয়ে এটা করেছে, কারণ সে এখানে সুখে ছিল। কিন্তু আমাদের এটা মনে নিতে হবে যে, তার অন্য চ্যালেঞ্জ ছিল এবং সে সেটা নিতে চেয়েছিল।’

‘এটা একটি অনুমেয় সিদ্ধান্ত ছিল, যা সে তার পরিবারের সঙ্গে গ্রহণ করেছিল। এখানে কোনো কলঙ্ক নেই। সে ক্লাবকে যা কিছু দিয়েছে তার জন্য কেবল প্রশংসা এবং ভালোবাসা আছে’- বলেন সুয়ারেজ।

বার্সেলোনা নেইমারের শূন্যতা অনুভব করে না বলেই জানালেন সুয়ারেজ, ‘নেইমার ব্যতিক্রমী এবং বিশেষ একজন খেলোয়াড়। অন্য ফুটবলাররা এসে অনেক অবদান রাখছে। যেমন জেরার্ড ডেলোফেউ আছে, সে আগেই ক্লাবে অনুশীলন করেছে। পাওলিনহো আছে, সে সমালোচকদের জবাব দিয়েছে এবং সর্বোচ্চ পর্যায়ে ভালো পারফর্ম করছে। সেও ব্রাজিলের একজন অধিনায়ক। ডেম্বেলের দুর্ভাগ্য, সে এসেই চোটে পড়েছে। কিন্তু যখন সে সুস্থ হবে, আপনি দেখতে পাবেন সে কতটা চমক দেখায়।’

তথ্যসূত্র : ফোর ফোর টু।