নীলফামারীতে চোরাই মোটর সাইকেলসহ পুলিশের এএসআই আটক

নীলফামারীতে চোরাই মোটর সাইকেলসহ পুলিশের এক এএসআইকে আটক করেছে এলাকাবাসী। আটককৃত এএসআই হলেন, জাভেদ আলী। পঞ্চগড় জেলার সদর উপজেলার মাছপুকুর গ্রামের আজগার আলীর ছেলে সে। ও গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানার এএসআই বলে নিজেকে দাবি করেন। আজ রোববার দুপুরে তাকে জেলা শহরের স্টাফ কোয়ার্টার মোড় থেকে আটক করা হয়। জানা যায়, গত শুক্রবার রাতে জেলা শহরের কলেজপাড়া এলাকার ব্যাংক কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম গোলাপের বাসার গ্যারেজ থেকে ডিসকভার ১৩৫ সিসি ও হোন্ডা ট্রিগার ১৫০ সিসি’র ২টি মোটর সাইকেল চুরি হয়।

আজ রবিবার দুপুরে ওই ব্যাংক কর্মকর্তার ছেলে ঈশান তার এক বন্ধু মারফত মোবাইল ফোনে খবর পায় যে তার মোটর সাইকেলের মতো একটি মোটর সাইকেল ডোমার রোড দিয়ে নীলফামারী শহরের দিকে যাচ্ছে। ঈশান তড়িঘড়ি করে তার আরও কয়েকজন বন্ধু মিলে শহরের স্টাফ কোয়ার্টার মোড় এলাকায় ওই মোটর সাইকেল আরোহীকে থামতে বলেন। কিন্তু তিনি দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে মোটর সাইকেলে করে তার পিছন পিছন ধাওয়া করে ট্রিগার ১৫০ সিসি মোটর সাইকেলটিসহ তাকে আটক করা হয়। এসময় তিনি নিজেকে পুলিশের এএসআই বলে পরিচয় দেন। এতে স্থানীয় লোকজন আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে এবং তাকে মারপিট করে। খবর পেয়ে সদর থানার এসআই আব্দুর রহিম তাকে উদ্ধার করে সদর থানায় নিয়ে যায়।

পরে থানায় ওই এএসআই সাংবাদিকদের জানান, তিনি মোটর সাইকেলটি তার ভাইয়ের শ্যালক ফারুকের কাছ থেকে ৬০হাজার টাকায় কিনে গোবিন্দগঞ্জে তার কর্মস্থলে ফিরছিলেন। তবে স্থানীয়দের ধারনা মোটর সাইকেল চুরি ও সরবরাহকারী গ্রুপের সঙ্গে ওই পুলিশ কর্মকর্তা সরাসরি জড়িত।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহাজাহান পাশা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে অপর মোটর সাইকেলটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

You Might Also Like