নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারত-চীনা সেনাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি, চকলেটে সমাধান

এখন সময় ডেস্কঃ অরুণাচল প্রদেশের ভারত-চীন সীমান্তে ভারতীয় এবং চীনা সেনাদের মধ্যে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটেছে। গণমাধ্যমে প্রকাশ, গত বৃহস্পতিবার চীনা পিপলস লিবারেশন আর্মি বা পিএলএ’র ২৭৬ জন জওয়ান অরুণাচল প্রদেশে ভারত-চীন সীমান্ত সংলগ্ন নিয়ন্ত্রণরেখা’র ইয়াংসি অঞ্চলে ভারতীয় ভূখণ্ডে জোর করে প্রবেশ করার চেষ্টা করলে প্রহরারত ভারতীয় জওয়ানরা তা রুখে দেয়। নিয়মিত ব্যানার ড্রিলের সময় চীনা সেনারা মারমুখী হয়ে ভারতীয় সেনাদের ওপর হামলা করার চেষ্টা করলে এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে সামান্য ধস্তাধস্তি হয়।

ঘটনাস্থলে পৌঁছে উত্তেজনা প্রশমন করেন চীনা সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা। চার জন চীনা কর্মকর্তা দোভাষীকে সঙ্গে নিয়ে এসে ভারতীয় সেনার কম্যান্ডিং অফিসারের সঙ্গে দেখা করে দুই প্যাকেট চকলেট বিনিময় করেন। এছাড়া ইয়াঙ্কি-১ চৌকির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে একটি উপহার প্যাকেট তুলে দেন। অবশেষে মিটে যায় দুই পক্ষের বিবাদ।

ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রক সূত্রে খবর, শঙ্কর টিকরি দিয়ে ২১৫ জন, থাং লা, মেরা গ্যাপ দিয়ে ২০ জন করে এবং ইয়াঙ্কি-১ দিয়ে ২১ জন চীনা সেনা জওয়ান ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশ করার চেষ্টা চালায়।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরণ রিজিজু বলেন, চকোলেট আদান-প্রদানের মধ্য দিয়ে বিবাদ মিটে গেছে। নয়াদিল্লিতে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, সৌহার্দপূর্ণভাবে চীনা সেনারা ফিরে গেছে।

এদিকে, ভারতের পক্ষ থেকে এসব কথা বলা হলেও চীন অবশ্য ভারতীয় সীমানায় কোনো অনুপ্রবেশের ঘটনাই ঘটেনি দাবি করেছে। বুধবার বেজিংয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর রুটিন মেনে চীনা সেনারা টহল দেয়। তাই অনুপ্রবেশের কোনও ঘটনা সেখানে ঘটেনি।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু কং বলেন, চীন এবং ভারত সীমান্ত নিয়ে এখনো সীমানা নির্ধারণ হয়নি। চীনা সেনারা নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর চীনের এলাকায় সাধারণ টহলদারি চালাচ্ছিল বলেও তার দাবি।

You Might Also Like