নিজের স্ত্রী বা প্রেমিকা কতোটা ঠকাচ্ছে আপনাকে !

সম্পর্ক গুলো আমাদের জীবনে অনেক গুরুত্বের।ইদানীং পারিবারিক সম্পর্কে উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে মতানৈক্য সেই সাথে বাড়ছে বিচ্ছেদ।সময়ের আগেই সতর্কতা পারে এমন উদ্ভট পরিস্থিতি থেকে আমাদের রক্ষা করতে। এখন আর অন্য কোন মাধ্যম নয়,খোদ জেনে নিতে পারেন আপনার লাইফ পার্টনার আপনার সাথে সম্পর্কের বিশ্বাস কতোটুকু রক্ষা করছে।সম্প্রতি দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এর সূত্রে জানা গেছে, স্ত্রী ঠকাচ্ছে বা প্রতারণা করছে কি-না, তার কিছু লক্ষণ দিয়ে আপনি বুঝতে পারবেন।বিশেষজ্ঞদের মতে,ফোনকল, বান্ধবীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ, স্নান ও ব্যায়াম, ঘ্রাণ, চক্ষু যোগাযোগ, এবং যৌন বিচ্যুতির লক্ষণের মাধ্যমে আপনার স্ত্রী সম্পর্কে ধারণা পাবেন। ফোনকল : ফোনে কথা বলার সময় কণ্ঠস্বর বা খুদে বার্তার কারণে অভ্যাস পরিবর্তন হলে বুঝবেন আপনার স্ত্রী আপনাকে ঠকাচ্ছে। তিনি যদি ফোনে কথা বলার সময় নিচু কণ্ঠস্বর ব্যবহার করেন বা আপনার সঙ্গে প্রথম দেখা করার সময় যেরকম প্রেমের আচরণ করেছেন, সেরূপ আচরণ করেন; যদি মনে হয় তার ফোন অভ্যাসের পরিবর্তন হয়েছে এবং আপনি পরিবর্তন ধরতে পারছেন না, তবে বুঝবেন তার সঙ্গে অন্য কারও প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছে।

স্নান ও ব্যায়াম : আপনার স্ত্রী স্নান করে ঘরে ফেরেন, যেখানে আগে দিনে একবারও স্নান করতেন না। অন্যদিকে হঠাৎ করে তিনি ব্যায়াম করা শুরু করেছেন। এর দুটি বিষয় আছে_ ব্যায়াম বৈধ অজুহাত হতে পারে। আবার নতুন প্রেমে আগ্রহ থেকেও হতে পারে। অন্যদিকে শারীরিক সম্পর্কের কারণে তিনি বিকেলে স্নান করতে পারেন। যে স্নান তিনি আগে রাতে করতেন। বান্ধবীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ : তিনি যদি আগের তুলনায় তার বান্ধবীদের সঙ্গে বেশি সময় ব্যয় করেন, অনেক বিকেল তাদের সঙ্গে কাটান, যা আগে আপনি দেখতে পাননি; কার সঙ্গে ছিলেন তার উত্তর জানতে চাইলে তার উত্তর আন্তরিক হয়, তবে বুঝবেন আপনার স্ত্রী বান্ধবীদের সঙ্গে নয়, অন্য কারও সঙ্গে বাইরে ছিলেন। ঘ্রাণ : আপনার স্ত্রীর কাছ থেকে যদি নতুন কোনো পারফিউমের ঘ্রাণ পান, যা আগে আপনি পাননি, তাহলে বুঝবেন আপনার স্ত্রী অন্য কারও সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করেছে। চক্ষু যোগাযোগ : তিনি চোখে চোখ রেখে কথা বলা বা প্রশ্নের উত্তর দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন, যা আগে তিনি কখনোই করতেন না; কিন্তু সরাসরি তার দৃষ্টি আপনি খুঁজছেন। বেশিরভাগ মানুষের ক্ষেত্রে চোখে চোখ রেখে মিথ্যা কথা বলা খুব কঠিন। যদি আপনার স্ত্রী আপনাকে মিথ্যা বলে তাহলে তিনি কখনোই আপনার চোখের দিকে তাকাতে পারবেন না। যৌন বিচ্যুতি : আপনার সঙ্গে তার আগের চেয়ে যৌন মিলনে আগ্রহ কমে যায়। যৌন মিলনের সময় তিনি শুধু ভান করছেন।

যৌন বিষয়ে আপনি আগে জানতে বা আপনাকে নতুন কৌশল শিক্ষা দিতে চাচ্ছেন। যৌন আচরণে পরিবর্তন হয়েছে। যা নতুন সম্পর্ককে ইঙ্গিত করে এবং ঘরের বাইরেই তিনি তার যৌন চাহিদা পূরণ করেন। অর্থাৎ তার যৌন বিচ্যুতি ঘটেছে। এইসব লক্ষণ থেকেই একেবারে নিশ্চিত হওয়া যায় কিনা সেটা পরের বিষয়।কিছু একটা ভুল হবার আগেই প্রয়োজনীয় সতর্কতা রাখতে নিশ্চয়ই দোষের কিছু না ।

বিঃ দ্রঃ- প্রিয় পাঠক স্ত্রীর প্রতি লক্ষ্য রাখতে গিয়ে আবার একেবারে সন্দেহ পরায়ন হয়ে যাওয়াটা ঠিক নয়।মনে রাখবেন সন্দেহ অত্যন্ত ক্ষতিকর একটা রোগ, যা চিকিৎসার অযোগ্য। সন্দেহ পরায়ণতা থেকে মারাত্মক পরিণতি দেখা দেয়।যা শেষ পর্যন্ত মারাত্মক রোগেও পরিণত হতে পারে ।

You Might Also Like