নিউজার্সীতে বাংলাদেশী আকতারুজ্জামান ‘কাউন্সিলম্যান এট লার্জ’ পদে প্রার্থী: ৮ মে নির্বাচন

শিব্বর অাহমেদ নিউজার্সী থেকে: নিউজার্সী অঙ্গরাজ্যের পেটারসন সিটির নির্বাচিত সাবেক কাউন্সিম্যান মোহাম্মদ আকতারুজ্জামান এবার ‘কাউন্সিলম্যান এট লার্জ’ পদে নির্বাচন করতে যাচ্ছেন। আগামী ৮ মে এই নির্বাচনে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তার নির্বাচনী প্রচারণা শুরু উপলক্ষে গত ২০ জানুয়ারী শনিবার সন্ধ্যায় শতশত প্রবাসী বাংলাদেশী সহ অন্যান্য এথনিক কমিউনিটির সমর্থনে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন মোহাম্মদ আকতারুজ্জামান। তাকে সমর্থন জানান মেয়র প্রার্থী পেড্রো রডরিগাজ। অনুষ্ঠানে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার আহবান জানিয়ে অঙ্গীকার করলেন ‘সকল কমিউনিটির ভয়েজ’ হিসেবে। উল্লেখ্য, সিলেটের সন্তান মোহাম্মদ আকতারুজ্জামান। যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সী অঙ্গরাজ্যের প্রথম নির্বাচিত বাংলাদেশী-আমেরিকান কাউন্সিলম্যান। এই রাজ্যে আরো দুই বাংলাদেশী কাউন্সিলম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। সিটি প্রশাসনে নির্বাচিত বর্তমান দুই বাংলাদেশী-আমেরিকান কাউন্সিলম্যান হচ্ছেন মুক্তিযোদ্ধা ড. নূরান নবী ও শাহীন খালিক।’
বাংলাদেশী-আমেরিকান মোহাম্মদ আকতারুজ্জামান, ড. নূরান নবী আর শাহীন খালিক-এর কর্মকান্ডের মধ্য দিয়ে স্বপ্নের দেশ আমেরিকায় নানা ঘাত প্রতিঘাত পেরিয়ে বাংলাদেশীদের স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে। নিউজার্সীর মূলধারার রাজনীতিতে এগিয়ে চলেছেন বাংলাদেশী-আমেরিকানরা। স্থানীয় বাংলাদেশী-আমেরিকানদের আগামী দিনের স্বপ্ন ‘কাউন্সিলম্যান এট লার্জ’ পেরিয়ে মেয়র পদ। ইতিপূর্বে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যে বাংলাদেশী বংশদ্ভূত একজর ইউএস কংগ্রেসে নির্বাচিত হয়েছেন। ফিলাফেলডিয়া অঙ্গরাজ্যে ডেপুটি মেয়রের দায়িত্ব পালন করেন বাংলাদেশী-আমেরিকান।
পেটারসনের একটি মিলনায়তনে ২০ জানুয়ারীর ব্যতিক্রমী এই নির্বাচনী সভার শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের পর যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশ-এর জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এরপর স্বাগত বক্তব্য রাখেন মোহাম্মদ আকতারুজ্জামানের নির্বাচনী সভার আহ্বায়ক আজমল আলী। সভায় ‘কাউন্সিলম্যান এট লার্জ’ প্রার্থী মোহাম্মদ আকতারুজ্জানের সমর্থনে শুভেচ্ছার বক্তব্য রাখেন সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা’র সম্পাদক ও টাইম টেলিভিশন-এর সিইও আবু তাহের, পেটারসন সিটির সাবেক ডেপুটি মেয়র আমনি আবু হকবার, কাউন্সিলম্যান আনন্দ শাহ, ভীন ক্যাথলীন, ফোবানা’র সাবেক চেয়ারম্যার মীর চৌধুরী, সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ টেপন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন নিউজার্সীর সাবেক সভাপতি আনসার আহমদ ও শামসুল ইসলাম, ডা. আকতম আলী তালুকদার, ইমাম খাতমী, কমিউনিটি নেতা ফারুক চৌধুরী, সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের পাঁচ পাঁচবারের চেয়ারম্যান আব্দুল আহাদ, স্প্যানিশ কমিউনিটির তরুণ প্রতিনিধি ফানিয়া সান্তান প্রমুখ। সভা পরিচালনা করেন আশরাফুল হাসান বুলবুল। মোহাম্মদ আকতারুজ্জামানের সমর্থনে সমবেত হওয়া নির্বাচিনী সভায় শত শত বাংলাদেশীর সমর্থন কামনা করেন পেটারসন সিটির আগামী মেয়র প্রার্থী পেড্রো রডরিগাজ।
হহনির্বাচনী সভায় নিউজার্সীর ‘কাউন্সিমান এট লার্জ’ পদের প্রার্থী মোহাম্মদ আকতারুজ্জামান তার নির্বাচনী প্রচারণার শুরুতেই প্যাটারসন সিটিকে ‘নিরাপদ সিটি’ হিসেবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার করে বলেন, এই শহরে ক্রাইম বেড়েছে, প্রোপারটি ট্যাক্স বেড়েছে। এসব সমসার সমাধানে সবাইকে নিয়ে কাজ করা অঙ্গীকার করেন মোহাম্মদ আকতারুজ্জামান। তিনি বলেন, একজন বাংলাদেশী-আমেরিকান হিসেবে আমি গর্বিত। গর্বিত এই জন্য যে, আমিই প্রথম বাংলাদেশী কাউন্সিলম্যান। সবার দোয়া আর সহযোগিতা পেলে আগামী নির্বাচনে আরো বড় পদে বিজয়ী হয়ে বাংলাদেশের গৌরব বয়ে নিতে চাই। তিনি বলেন, সবার সহযোগিতায় আমরা জয়ী হবো।
সভায় বক্তারা মোহাম্মদ আকতারুজ্জামানকে একজন ভালো মানুষ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, সবাই মিলে কাজ করলে অবশ্যই তিনি বিজয়ী হবেন। সেই সুযোগ রয়েছে। তার বিজয়ের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের সুনাম বৃদ্ধি পাবে। প্রবাসে বাংলাদেশীদের ভীত শক্ত হবে। বক্তারা বলেন, বাংলাদেশী-আমেরিকানদের জন্য সামনে সুদিন আসছে। আগামী দিনে আমরা বাংলাদেশীকে মেয়র, কংগ্রেসম্যান, সিনেটর দেখতে চাই। এচজন্য প্রয়োজন সকল প্রবাসী বাংলাদেশীদের ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে ছিলো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী শাহ মাহবুব ও খায়রুল ইসলাম সবুজ সহ বেলাল, চন্দ্রিকা, সোহেল, ফখরুল প্রমুখ শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন। নির্বাচনী সভা আয়োজকদের দাবী অনুষ্ঠানে ৫ শতাধিক বাংলাদেশী সহ বিভিন্ন এথনিক কমিউনিটির বিপুল সংখ্যক অভিবাসী যোগ দেন।

You Might Also Like